খুঁজুন
বৃহস্পতিবার, ২৫শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১০ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আজঃ বৃহস্পতিবার, ২৫শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
শিরোনাম:
গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা গেছেন তানজিন তিশার ব্যক্তিগত সহকারী এশিয়া কাপের সেমিফাইনালে বাংলাদেশের মেয়েরা মিয়ানমারে ভারপ্রাপ্ত প্রেসিডেন্টের দায়িত্বে সেনাপ্রধান মিন অং হ্লাইং নেপালে উড়োজাহাজ বিধ্বস্ত, পাইলট ছাড়া সব আরোহীর মৃত্যু ব্লাড প্রেশার নিয়ন্ত্রণে রাখবে ড্রাই ফ্রুটস ইন্টারনেট বন্ধে সফটওয়্যার খাতে ৫০০ কোটি টাকার ক্ষতি সহিংসতায় জড়িত সকলকে বিচারের মুখোমুখি হতে হবে : ওবায়দুল কাদের আশংকা ছিল এ ধরনের একটা আঘাত আসবে:প্রধানমন্ত্রী চুয়াডাঙ্গায় রেলওয়ে ওভারপাস র‍্যাম্প নির্মাণে ত্রুটি, দুই প্রান্তের র‍্যাম্পের দৈর্ঘ্য বাড়ানো হয়েছে আরো ১১২ মিটার,ব্যয় বাড়ল ১১ কোটি টাকা চীনে শপিং মলে আগুন, নিহত ১৬ কোটা আন্দোলন নিয়ে স্বস্তিকা মুখার্জীর আবেগঘন স্ট্যাটাস সারা দেশে ২২৯ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন পুলিশ-আন্দোলনকারী সংঘর্ষে র-ণ-ক্ষে-ত্র শনিরআখড়া জাতির উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রীর ভাষণের পূর্ণ বিবরণ চুয়াডাঙ্গা সহ বিটিভির তিন জেলা প্রতিনিধিকে বাদ দেওয়ার নির্দেশ মেহেরপুরে রাস্তা ও ড্রেনের কাজের উদ্বোধন করলেন পৌর মেয়র মাহফুজুর রহমান রিটন গাংনীতে বঙ্গবন্ধু ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত নেহালপুরের মজিবপাড়ার পথসভায় চেয়ারম্যান প্রার্থী মিন্টু ভোটাধিকার ফিরিয়ে এনেছি বাকি দায়িত্ব আপনাদের জীবননগরে সাংবাদিক হত্যার হুমকিতে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা চুয়াডাঙ্গায় কোটা সংস্কারের পক্ষে বিপক্ষে কর্মসূচি পালন ৭১ সালের সব নাগরিককে মুক্তিযোদ্ধা ঘোষণার নির্দেশনা চেয়ে রিট ভারতের রাজ্য সরকারের সাবেক শিক্ষামন্ত্রীর লাশ ভেসে এল তিস্তায় আলমডাঙ্গায় মাদক সেবন ও বিক্রির অপরাধে তিন জনের জেল জরিমানা চুয়াডাঙ্গা উদীচীর আয়োজনে ৬ষ্ঠ বারের মতো কাঁঠাল উৎসব, কাঠাঁল প্রেমিদের ভক্ষণ মেহেরপুরে ৯ কেজি গাঁজাসহ দুই মাদক ব্যবসায়ী আটক কার্পাসডাঙ্গার ভৈরব নদীতে মোবাইল কোর্টের অভিযানে কারেন্ট ও দুয়ারী জাল বিনষ্ট বাল্যবিয়ের কারণেই সমাজে আত্মহত্যার প্রবণতা বেড়ে যায়ঃজেলা প্রশাসক ড. কিসিঞ্জার চাকমা যারা মানুষের কল্যাণে কাজ করে তাদেরকেই ভোট দেওয়া উচিৎঃনঈম হাসান জোয়ার্দ্দার চুয়াডাঙ্গায় ভোক্তা সংরক্ষণ অধিদপ্তরের অভিযানে মেয়াদোত্তীর্ণ কোমল পানীয় ও কীটনাশক উদ্ধার কাল থেকে স্কুল-কলেজ অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা ॥ বৃহস্পতিবারের এইচএসসি পরীক্ষা স্থগিত ॥ হল ত্যাগের নির্দেশ দিনভর ত্রিমুখী সংঘর্ষ, নিহত ৬

রফতানিতে রেকর্ড গড়া পণ্য যেভাবে আমদানির তালিকায়

ডেস্ক নিউজ
প্রকাশিত: সোমবার, ৮ জুলাই, ২০২৪, ৬:৫৯ অপরাহ্ণ
রফতানিতে রেকর্ড গড়া পণ্য যেভাবে আমদানির তালিকায়

ফাইল ফটো

বাংলাদেশের আলু একসময় দেশের মানুষের চাহিদা মিটিয়ে রফতানি হতো বিশ্বের ১৬টি দেশে। তিন বছর আগেও আলু রফতানিতে রেকর্ড হয়েছে। সেই বছর ২ লাখ টনের বেশি আলু রফতানি হয়। এরপরই কমতে শুরু করে রফতানির পরিমাণ। এক পর্যায়ে আলু রফতানির পরিবর্তে ঝুঁকতে হয় আমদানিতে।

জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) বলছে, ২০২৩-২৪ অর্থবছরে দেশের চাহিদা মেটাতে প্রথমবারের মতো আলু আমদানি করা হয়েছে। ঐ বছর ৯৮ হাজার ৭৩১ টন আলু আমদানির বিপরীতে রফতানি হয়েছে মাত্র ১২ হাজার ৩৫২ টন।

শুধু আলু নয়, কাঁচা মরিচ, টমেটো, গাজরসহ বেশকিছু কৃষিপণ্য আমদানি করতে হচ্ছে। একদিকে এসব পণ্যের আমদানি বাড়ছে, বিপরীতে কমছে রফতানি।

আলু রফতানির সর্বোচ্চ রেকর্ড হয়েছিল ২০২০-২১ অর্থবছরে। ঐ অর্থবছরে ২ লাখ ৮ হাজার টন আলু রফতানি হয়।

এনবিআরের হিসাবে, সদ্য বিদায়ী ২০২৩-২৪ অর্থবছরে রফতানির প্রায় ৮ গুণ আলু আমদানি হয়েছে। রফতানি বাদ দিয়ে এ সময়ে নিট আমদানির পরিমাণ ৮৫ হাজার ৯১৩ টন। আমদানি ব্যয় ও রফতানি আয়ের তুলনা করলে দেখা যায়, সদ্য বিদায়ী অর্থবছরে আলু রফতানি করে আয় হয়েছে প্রায় ৩৮ লাখ ডলার। তার বিপরীতে আমদানিতে খরচ হয়েছে ১ কোটি ৫৭ লাখ ডলার।

বাজার ব্যবস্থাপনা বিশেষজ্ঞ ও রফতানিকারকদের মতে, বাজার ব্যবস্থাপনা ও সংরক্ষণ ব্যবস্থা উন্নত করা গেলে আলুর মতো অনেক কৃষিপণ্য আমদানির দরকার হবে না। তাতে রফতানি যেমন করা যেত, তেমনি বাজারে ন্যায্যমূল্য নিশ্চিত হতো।

যেভাবে রফতানি পণ্য থেকে আমদানি পণ্য হলো
আলু উৎপাদনে বাংলাদেশ বিশ্বে সপ্তম। স্বাধীনতার পর থেকে ২০২২-২৩ অর্থবছর পর্যন্ত ৫২ বছরে বাংলাদেশ কখনো চাহিদা মেটানোর জন্য আলু আমদানি করেনি। কারণ, এ সময়ে চাহিদার তুলনায় উৎপাদন ছিল বেশি। এ সময়ে মূলত আলু উৎপাদনের জন্য আলুবীজ আমদানি হয়েছে।

২০২৩-২৪ অর্থবছরে দেশের চাহিদা মেটাতে প্রথমবারের মতো আলু আমদানি করা হয়েছে। ঐ বছর ৯৮ হাজার ৭৩১ টন আলু আমদানির বিপরীতে রফতানি হয়েছে মাত্র ১২ হাজার ৩৫২ টন।

জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থা (এফএও) এবং জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের তথ্যে এমন চিত্র পাওয়া গেছে।

তবে আলুর দাম বাড়তে থাকায় বাজার স্থিতিশীল রাখতে ২০২৩ সালের ৩০ অক্টোবর আলু আমদানির অনুমতি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। এরপর গত বছরের ২ নভেম্বর প্রথমবারের মতো বাণিজ্যিকভাবে আলু আমদানি শুরু হয়। হিলি, সোনামসজিদ, বুড়িমারী, বেনাপোল স্থলবন্দর দিয়ে আলু আমদানি করা হয়।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর বিদায়ী অর্থবছরে ৫ লাখ ৩০ হাজার টন আলু আমদানির অনুমতি দিয়েছে ব্যবসায়ীদের। এনবিআরের তথ্য অনুযায়ী, বিদায়ী অর্থবছরে প্রায় ৯৮ হাজার টন আলু আমদানিতে ব্যয় হয়েছে ১ কোটি ৫৭ লাখ ডলার। প্রতি কেজি আলু আমদানিতে শুল্ককরসহ খরচ পড়ছে প্রায় ৩০ টাকা। খুচরা বাজারে এই আলু বিক্রি হচ্ছে ৪৮ থেকে ৫৫ টাকা।

এমন সময়ে আলু আমদানি হচ্ছে যখন উৎপাদন বৃদ্ধির কথা বলছে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর। সংস্থাটির প্রাথমিক হিসাবে, বিদায়ী অর্থবছরে আলু উৎপাদন হয়েছে ১ কোটি ৯ লাখ টন। মাঠপর্যায় থেকে আলু বাজারজাতকরণ পর্যন্ত প্রায় ১৫ শতাংশ অপচয় হয়। সেই হিসাবে আলু পাওয়া যাবে প্রায় ৯৩ লাখ টন, যা চাহিদার প্রায় সমান। যদিও হিমাগার ব্যবসায়ীরা বলছেন, বিদায়ী অর্থবছরে আলু উৎপাদন হয়েছে কম।

বিদায়ী অর্থবছরে প্রায় ৯৮ হাজার টন আলু আমদানিতে ব্যয় হয়েছে ১ কোটি ৫৭ লাখ ডলার। প্রতি কেজি আলু আমদানিতে শুল্ককরসহ খরচ পড়ছে প্রায় ৩০ টাকা। খুচরা বাজারে এই আলু বিক্রি হচ্ছে ৪৮ থেকে ৫৫ টাকা।

আলুর মতো গাজর, টমেটো ও কাঁচা মরিচও আমদানি হচ্ছে। একসময় গাজর ও টমেটো সামান্য পরিমাণে আমদানি হতো, যখন দেশে মৌসুম থাকত না। এখন ধারাবাহিকভাবে আমদানি বাড়ছে। একই অবস্থা কাঁচা মরিচেও। দেশে দাম বেড়ে গেলে বাজার নিয়ন্ত্রণে রাখতে আমদানির পথ খুলে দেওয়া হচ্ছে। এনবিআরের তথ্যে দেখা যায়, বিদায়ী অর্থবছরে তিনটি পণ্য আমদানি হয়েছে প্রায় ৯০ হাজার টন।

কমছে রফতানি
এফএওর হিসাবে, আলু রফতানি ধারাবাহিকভাবে শুরু হয় ১৯৯৯ সাল থেকে। তখন খুবই সামান্য পরিমাণে আলু রফতানি হতো। ধীরে ধীরে রফতানি বাড়তে থাকে। আলু রফতানির সর্বোচ্চ রেকর্ড হয়েছিল ২০২০-২১ অর্থবছরে। ঐ অর্থবছরে ২ লাখ ৮ হাজার টন আলু রফতানি হয়। ২০২১-২২ অর্থবছরে রফতানি প্রায় ৫০ শতাংশ কমে দাঁড়ায় ১ লাখ টনে। ২০২২-২৩ অর্থবছরে তা আরও কমে ৩৪ হাজার টনে নেমে আসে। এবার আরও কমে প্রায় ১২ হাজার টনে নেমেছে। রফতানির গন্তব্যও কমছে। একসময় বিশ্বের ১৬টি দেশে রফতানি হতো বাংলাদেশের আলু, এখন সেখানে রফতানি গন্তব্য কমে ১১টিতে নেমেছে। চলতি বছর আলু রফতানিতে নগদ সহায়তা ২০ শতাংশ থেকে কমিয়ে ১৫ শতাংশ করা হয়েছে।

রফতানি কেন কমছে, জানতে চাইলে আলু রফতানিকারক সমিতির সভাপতি ফেরদৌসী বেগম বলেন, গত বছর কৃষক পর্যায়ে মাঠ থেকে আলু সংগ্রহ করে জাহাজে তুলে দেওয়া পর্যন্ত প্রতি কেজি ৩০ টাকার নিচে খরচ পড়তো। এখন তা ৪০-৪৫ টাকা ছাড়িয়ে গেছে। কিন্তু বিশ্ববাজারে রফতানিমূল্য বাড়ছে না। প্রণোদনা নিয়েও আলু রফতানিতে লোকসান গুনতে হচ্ছে। এখন আলুর বাজারে যে অবস্থা, তাতে রফতানি সামনে আরো কমে আসবে।

শুধু আলু নয়, কাঁচা মরিচ, টমেটো, গাজরসহ বেশকিছু কৃষিপণ্য আমদানি করতে হচ্ছে।

আলু উৎপাদনে ঘাটতি নেই, দাবি করে তিনি বলেন, বাজার ব্যবস্থাপনা ঠিক করা গেলে বিদ্যমান উৎপাদন দিয়ে চাহিদা মেটানোর পাশাপাশি রফতানিও সম্ভব।

আন্তর্জাতিক বাণিজ্যকেন্দ্রের তথ্য অনুযায়ী, ২০২২ সালে বিশ্ববাজারে ৪২৪ কোটি ডলারের আলু রফতানি হয়েছে। আলু রফতানিতে শীর্ষ দেশ ফ্রান্স। ২০২২ সালে আলু রফতানিতে বাংলাদেশের অবস্থান ছিল ২৬তম। রফতানি কমতে থাকায় সামনে ক্রমতালিকায় আরো পিছিয়ে যেতে পারে বাংলাদেশ।

বাড়বে আমদানি নির্ভরতা
উৎপাদন-ঘাটতির কারণে পেঁয়াজ, ডাল, রসুনের মতো কৃষিপণ্য আমদানিও নিয়মিতভাবে বাড়ছে। তাতে উৎপাদনে স্বয়ংসম্পূর্ণ পণ্যও আমদানির তালিকায় যুক্ত হচ্ছে। এসব কৃষিপণ্য আমদানিনির্ভর হয়ে যাচ্ছে কি না, তা নিয়ে প্রশ্ন তৈরি হয়েছে।

একসময় বিশ্বের ১৬টি দেশে রফতানি হতো বাংলাদেশের আলু, এখন সেখানে রফতানি গন্তব্য কমে ১১টিতে নেমেছে। চলতি বছর আলু রফতানিতে নগদ সহায়তা ২০ শতাংশ থেকে কমিয়ে ১৫ শতাংশ করা হয়েছে।

কৃষি অর্থনীতিবিদ ও গ্লোবাল ভিলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য জাহাঙ্গীর আলম বলেন, দুই বছর ধরে আলুর উৎপাদন খুব বাড়ছে না। আলুর ব্যবহার বাড়তে থাকায় উদ্বৃত্ত আলুর পরিমাণ কমছে। উদ্বৃত্ত কমলে ব্যবসায়ীরা কারসাজির সুযোগ পান। তাতে দামে অস্থিরতা হয়, যা এখন হচ্ছে। এ জন্য আলুর উদ্বৃত্ত বাড়াতে হলে উৎপাদন বাড়ানোর বিকল্প নেই। আলুসহ কৃষিপণ্য উৎপাদনের তথ্য ফুলিয়ে-ফাঁপিয়ে না দেখিয়ে প্রকৃত তথ্য নিশ্চিত করা উচিত, যেন সরকার উৎপাদন বাড়ানোর পরিকল্পনা করতে পারে।

গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা গেছেন তানজিন তিশার ব্যক্তিগত সহকারী

বিনোদন ডেস্কঃ
প্রকাশিত: বুধবার, ২৪ জুলাই, ২০২৪, ৪:৪৩ অপরাহ্ণ
গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা গেছেন তানজিন তিশার ব্যক্তিগত সহকারী

কোটা সংস্কার আন্দোলনকে কেন্দ্র করে সৃষ্টি সহিংসতায় গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা গেছেন অভিনেত্রী তানজিন তিশার ব্যক্তিগত সহকারী আলামিন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অভিনেত্রী নিজেই নিশ্চিত করেছেন খবরটি।

গতকাল মঙ্গলবার (২৩ জুলাই) নিজের ফেসবুকে আলামিনকে নিয়ে তিশা লেখেন, কীভাবে শুরু করব জানি না। আপনারা হয়তো সবাই ওকে আমার অ্যাসিস্ট্যান্ট হিসেবে চেনেন। কিন্তু ও আমার অ্যাসিস্ট্যান্ট না, আমার ছোট ভাই।

গত চার বছর ধরে ও আমার সঙ্গেই থাকে, আমার ফ্যামিলিতেই থাকে। আপু কি লাগবে, আপু কি খাবে, আপু কখন ঘুমাবে, আবার কখন মনটা খারাপ, মনটা ভালো সবকিছু এই ছেলেটাই জানতো আর দেখত।

তিশা আরও লিখেছেন, আলামিন, সারাটা দিন আমার বড় একটা ছায়ার মতো পাশে বসে থাকত। আমার কত প্ল্যান ওকে নিয়ে। ওকে ড্রাইভিং শেখাব, জোর করে বলতাম পড়াশোনাটা কন্টিনিউ করতে, পরীক্ষাটা দিতে।

অনেকে অনেক কিছু বলতো কিন্তু দুনিয়ার সাথে যুদ্ধ করে ও আপুর কাছে এসে বসে থাকতো। ঈদের দিনগুলোও আগে আমার সাথে থাকত, তারপর ওর ফ্যামিলির সাথে। কত বকা দিয়েছি, মন খারাপও করে থাকতো আবার একটু পর ঠিকই বুঝাতাম। একটা না দুই দুইটা গুলি কি করে নিয়েছে এই বাচ্চা ছেলেটা?

সবশেষে তিশা লিখেছেন, আলামিন কোনো দল অথবা কোনকিছুর সাথে জড়িত ছিল না। ওর বিগত ৪ বছর জীবনটা আমার সাথে, আমার কাজের এবং আমার পরিবারের সাথেই কেটেছে। ওর জীবনে কোন পাপ নাই, খুব ছোট একটা মানুষ এই চার বছর আমার কাছে বড় হতে দেখলাম। দোয়া করবেন সবাই আল্লাহর কাছে যেন সুন্দর জীবনে থাকে।

 

এশিয়া কাপের সেমিফাইনালে বাংলাদেশের মেয়েরা

পশ্চিমাঞ্চল স্পোর্টস ডেস্কঃ
প্রকাশিত: বুধবার, ২৪ জুলাই, ২০২৪, ৪:৩৯ অপরাহ্ণ
এশিয়া কাপের সেমিফাইনালে বাংলাদেশের মেয়েরা

মালয়েশিয়াকে বড় ব্যবধানের হারিয়ে লক্ষ্য পূরণ করে এশিয়া কাপের সেমিফাইনালে জায়গা করে নিয়েছে বাংলাদেশ নারী দল। ব্যাটারদের দাপুটে পারফরম্যান্সের সঙ্গে বল হাতে দারুণ পারফরম্যান্স উপহার দিয়েছে টাইগ্রেস বোলাররা।

চলমান নারী এশিয়া কাপের শুরুটা যদিও ভালো হয়নি বাংলাদেশের। সেমিফাইনালে জায়গা করে নিতে বাংলাদেশের দরকার ছিল বড় ব্যবধানের জয়। মালয়েশিয়ার বিপক্ষে সেই লক্ষ্য পূরণ করেছে বাংলাদেশের মেয়েরা।

বুধবার (২৪ জুলাই) শ্রীলঙ্কার ডাম্বুলায় টস জিতে আগে ব্যাট করে বাংলাদেশ নির্ধারিত ২০ ওভারে ২ উইকেট হারিয়ে ১৯১ রান সংগ্রহ করে। এটি এশিয়া কাপে বাংলাদেশের মেয়েদের সর্বোচ্চ স্কোর।

এর জবাব দিতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে মাত্র ৭৭ রান সংগ্রহ করতে পারে মালয়েশিয়ার মেয়েরা।

এই জয়ে টুর্নামেন্টের সেমিফাইনালে উঠে গেছে বাংলাদেশ। সেমিফাইনালে টাইগ্রেসদের প্রতিপক্ষ ভারত।

মিয়ানমারে ভারপ্রাপ্ত প্রেসিডেন্টের দায়িত্বে সেনাপ্রধান মিন অং হ্লাইং

পশ্চিমাঞ্চল অনলাইন মনিটরঃ
প্রকাশিত: বুধবার, ২৪ জুলাই, ২০২৪, ৪:৩৫ অপরাহ্ণ
মিয়ানমারে ভারপ্রাপ্ত প্রেসিডেন্টের দায়িত্বে সেনাপ্রধান মিন অং হ্লাইং

মিয়ানমারে ভারপ্রাপ্ত প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব নিইয়েছেন দেশটির সেনাপ্রধান মিন অং হ্লাইং। দেশটির সেনাবাহিনীর বরাত দিয়ে এক প্রতিবেদনে এমনটি জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম আলজাজিরা।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ভারপ্রাপ্ত প্রেসিডেন্ট মিন্ট শোয়ে চিকিৎসাসংক্রান্ত ছুটি নিয়েছেন। সেই সঙ্গে জান্তাপ্রধান মিন অং হ্লাইংয়ের কাছে দায়িত্ব হস্তান্তর করেছেন তিনি।

দেশটির রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন এমআরটিভির এক ঘোষণায় বলা হয়, সোমবার (২২ জুলাই) ভারপ্রাপ্ত প্রেসিডেন্টের কার্যালয় থেকে নতুন দায়িত্বের ব্যাপারে একটি চিঠি পান মিন অং হ্লাইং।

চিঠিতে বলা হয়, ভারপ্রাপ্ত প্রেসিডেন্ট মিন্ট শোয়ে অসুস্থ। তার চিকিৎসা প্রয়োজন। এজন্য তিনি ছুটিতে আছেন। তিনি সুস্থ হয়ে না ফেরা পর্যন্ত তার জায়গায় দায়িত্ব পালন করবেন মিন অং হ্লাইং।

২০২১ সালের ১ ফেব্রুয়ারি অভ্যুত্থানের মাধ্যমে গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত সরকারকে হটিয়ে মিয়ানমারের ক্ষমতা দখল করে দেশটির সেনাবাহিনী। অভ্যুত্থান রক্তপাতহীনভাবে হলেও কয়েক দিন পর দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশটিতে রক্তাক্ত বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে।

অভ্যুত্থানের মাধ্যমে ক্ষমতা দখল করলেও এখন মিয়ানমারের জান্তা বাহিনী দেশটি নিয়ন্ত্রণ করতে পারছে না। গত কয়েক সপ্তাহ ধরে দেশটিজুড়ে গৃহযুদ্ধ ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়েছে। এরই মধ্যে বিপ্লবী বাহিনী রাখাইন রাজ্যের প্রধান সমুদ্রসৈকত ও এর পাশের বিমানবন্দর নিজেদের দখল নিয়ে নিয়েছে। এ রাজ্যে দেশটির সশস্ত্র বিদ্রোহী গোষ্ঠী আরাকান আর্মির (এএ) সঙ্গে গত কয়েক সপ্তাহ ধরে জান্তা বাহিনীর ব্যাপক সংঘর্ষ হয়। এর পরই এসব দখলের ঘোষণা করে বিদ্রোহীরা।