চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামীলীগ’র আয়োজনে ২১আগস্ট গ্রেনেড হামলায় নিহতদের স্মরণে আলোচনা সভা ও দোয়া মহাফিলে ছেলুন জোয়ার্দ্দার এমপি

৭১, ৭৫ ও ২১ আগস্ট হামলার ঘটনা একই সূত্রে গাঁথাঃছেলুন জোয়ার্দ্দার এমপি

 

স্টাফ রিপোর্টারঃ২০০৪ সালের ২১আগস্ট গ্রেনেড হামলায় নিহতদের স্মরণে শনিবার (২১ আগস্ট) বিকেল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ চুয়াডাঙ্গা জেলা শাখার কার্যালয়ে বঙ্গবন্ধু এভিনিউ-এ সন্ত্রাস বিরোধী সমাবেশে তৎকালীন বিরোধী দলীয় নেতা বঙ্গবন্ধু কন্যা দলীয় সভানেত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা’র উপর গ্রেনেড হামলায় আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা আইভি রহমান সহ নিহতদের স্মরণে ও আহতদের সুস্থ্যতায় আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা জাতীয় সংসদের সাবেক হুইপ ও চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের সংসদ সদস্য সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দাল ছেলুন।

সভাপতির বক্তব্যে সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন এম পি বলেন,বিএনপি-জামাত দেশ বিরোধী মহাপরিকল্পনা করে বাংলাদেশকে জঙ্গি রাষ্ট্রে পরিণত করতে চেয়েছিলো, তবে তারা সফল হয় নি, সফল হবেও না। বাংলার মাটিতেই তাদের বিচার হবে। বিএনপি-জামাতকে এদেশের জনগণ ক্ষমতায় দেখতে চায় না। বিএনপি-জামাতের অরাজকতার কথা এদেশের মানুষ কখনো ভোলে নাই। কারণ, এদেশের মানুষ জানে, ‘একাত্তর, পঁচাত্তর ও ২০০৪-এর ২১ আগস্ট বোমা হামলার ঘটনা মূলত একই সূত্রে গাঁথা।’

তিনি আরো বলেন, একাত্তরের লাখো শহীদের রক্তে যে মাটি ভিজেছিল, যে মাটি বঙ্গবন্ধুর রক্তে ভিজেছিল পঁচাত্তরে, সেই মাটিতে আবারও রক্তস্রোত, যা ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট বিশ্ব অবাক বিস্ময়ে দেখেছে। সেদিন তাদের টার্গেট ছিল বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা। পঁচাত্তরের বুলেট ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট ফিরে আসে প্রাণঘাতী গ্রেনেড হয়ে। নেতাকর্মীরা প্রাণপণ করে নেত্রীর সুরক্ষায় গড়ে তোলে মানবঢাল। আল্লাহ তায়ালার অশেষ রহমতে আবারও বেঁচে যান বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা।

সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামীলীগ’র সহ-সভাপতি নাসির উদ্দিন আহমেদ, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক রিয়াজুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার টোটন, সাংগঠনিক সম্পাদক মুন্সি আলমগীর হান্নান ও মুফতি মাসুদ উজ্জামান লিটু বিশ্বাস, উপ-প্রচার সম্পাদক শওকত আলী বিশ্বাস, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলাম মালিক, কার্যনির্বাহী সদস্য ও জেলা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) এ্যাড. বেলাল হোসেন, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এবিএম জহুরুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আলাউদ্দিন হেলা,জাতীয় শ্রমিক লীগ চুয়াডাঙ্গা জেলা শাখার সভাপতি আফজালুল হক বিশ্বাস,চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী যুবলীগের সাবেক আহ্বায়ক আরেফিন আলম রুঞ্জু,চুয়াডাঙ্গা জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদিকা নুরুন্নাহার কাকলী, জাতীয় মহিলা সংস্থা চুয়াডাঙ্গার চেয়ারম্যান নাবিলা রুকসানা ছন্দা,সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান গরীব রুহানী মাসুম, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শাহাজাদী মিলি,যুবলীগ নেতা আব্দুল কাদের,সিরাজুল ইসলাম আসমান,জেলা ছাত্রলীগ নেতা তানভীর আহামেদ সোহেল,অয়ন জোয়ার্দ্দার, সোয়েব রিগান,টোকন, রকি, আকাশ, রিয়ন, এছাড়াও পৌরসভার সকল ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকগণ সহ অন্যান্য অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

২১ শে আগষ্টে গ্রেনেড হামলায় নিহতদের স্মরণে রুহের মাগফেরাত কামনা করে দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত দোয়া অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মুফতি মাসুদ উজ্জামান লিটু বিশ্বাস।