পশ্চিমাঞ্চল রিপোর্ট:৩৮তম বিসিএস থেকে প্রথম শ্রেণির নন-ক্যাডার পদে ৫৪১জনকে নিয়োগের সুপারিশ করেছে সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি)।গতকাল মঙ্গলবার বিকালে পিএসসির চেয়ারম্যান মো. সোহরাব হোসাইনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কমিশন সভায় এই ফলাফল প্রকাশের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। পরে পিএসসির ওয়েবসাইটে ফলাফল প্রকাশ করা হয়েছে।

পিএসসি এক বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, ৩৮তম বিসিএস পরীক্ষায় ক্যাডার পদে সুপারিশপ্রাপ্ত নন এমন প্রার্থীদের মধ্য থেকে নন-ক্যাডার প্রথম শ্রেণির [৯ম গ্রেড] পদে সুপারিশ করা হয়েছে। নন-ক্যাডার পদে নিয়োগ (বিশেষ) বিধিমালার-২০১০[সংশোধিত বিধিমালা-২০১৪] বিধান অনুযায়ী ৩৮তম বিসিএস পরীক্ষায় ক্যাডার পদে সুপারিশপ্রাপ্ত নন এমন প্রার্থীদের মধ্য থেকে সংশ্লিষ্ট নিয়োগ বিধিতে উল্লিখিত শিক্ষাগত যোগ্যতা সম্পন্ন প্রার্থীদের ৩৮তম বিসিএস-এ অর্জিত মেধাক্রম ও সংশ্লিষ্ট পদের/পদসমূহের নিয়োগ বিধির ভিত্তিতে এই ফলাফল প্রকাশ করা হয়।

৩৮তম বিসিএসএরলিখিত ও মৌখিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ কিন্ত পদ স্বল্পতার কারণে ক্যাডার পদে সুপারিশপ্রাপ্ত নন এমনপ্রার্থী সংখ্যা ৬ হাজার ১৭৩ জন। তার মধ্যে নন-ক্যাডার পদে সুপারিশেরজন্য আবেদনকারী প্রার্থীর সংখ্যা ৫ হাজার ৩২।

সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সমাজসেবা অধিদপ্তরের সমাজসেবা অফিসার/সমমান পদে১১১জন, কৃষি মন্ত্রণালয়ের মৃত্তিকা সম্পদ উন্নয়ন ইনস্টিটিউট পদে ৬২জন, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সরকারি কর্মচারী হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার পদে ৩৩জন, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্ছ শিক্ষা বিভাগের শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের সহকারী প্রকৌশলী (পুর) পদে ৮৫জন, আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অধীন সাব রেজিস্টার পদে ৩৯জন, স্বাস্থ্যও পরিবারকল্যাণমন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের ঔষধ তত্ত¡াবধায়ক পদে ১৯ জনসহ সর্বমোট ৫৩ ক্যাটাগরির ৫৪১ টি পদের জন্য সুপারিশ করে ফলাফল প্রকাশ করে সরকারী কর্ম কমিশন গত ৩০ জুন ৩৮তম বিসিএসের চূড়ান্ত ফলাফল প্রকাশ করে পিএসসি। এতে বিভিন্ন ক্যাডারের ২ হাজার ২০৪জনকে নিয়োগের সুপারিশ করা হয়। ২০১৭ সালের ২০ জুন ৩৮তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে পিএসসি। ওই বছরের ২৯ ডিসেম্বর ৩৮তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। প্রায় চার লাখ পরীক্ষার্থী আবেদন করেছিলেন। ২০১৮ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি ৩৮তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষার ফল প্রকাশ করে পিএসসি। এতে ১৬ হাজার ২৮৬ জন উত্তীর্ণ হন। গত বছরের ৮ আগষ্ট এই বিসিএসের লিখিত পরীক্ষা শুরু হয়। এতে ৯ হাজার ৮৬২জনকে মৌখিক পরীক্ষার জন্য মনোনীত করা হয়।