২৫ মার্চ গণহত্যা দিবসে চুয়াডাঙ্গা-মেরেহপুরে বিভিন্ন কর্মসূচি পালিত

পশ্চিমাঞ্চল ডেস্ক রিপোর্ট : ২৫ মার্চ গণহত্যা দিবসে বিভিন্ন কর্মসূচি পালিত হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার চুয়াডাঙ্গা ও মেহেরপুরসহ সারাদেশে গণহত্যার ওপর দুর্লভ আলোকচিত্র, প্রামাণ্যচিত্র, গণহত্যা ও মুক্তিযোদ্ধু বিষয়ক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, মোমবাতি প্রজ্জলন ও আলোচনাসভার মধ্যদিয়ে ২৫ মার্চ গণহত্যা দিবস পালন করা হয়েছে। এছাড়াও রাত ৯টা থেকে ৯টা ১ মিনিট পর্যন্ত এক মিনিট ব্যাক-আউট কর্মসূচি পালন করা হয়। তবে জরুরি স্থাপনাগুলো এই ব্যাক আউটের আওতার বাইরে ছিলো।


২৫ মার্চ গণহত্যা দিবস উপলক্ষে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় চুয়াডাঙ্গায় আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বঙ্গবন্ধুর স্মৃতি বিজরিত চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজ চত্বরে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। জেলা প্রশাসন ও সরকারি কলেজের আয়োজনে অনুষ্ঠিত গণহত্যা দিবসের আলোচনাসভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার। অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চুয়াডাঙ্গা পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম, পৌর মেয়র জাহাঙ্গীর আলম মালিক খোকন, চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. একেএম সাইফুর রশীদ, সরকারি আদর্শ মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক আজিজুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মনিরা পারভীন, চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ অধ্যাপক মো. কামরুজ্জামান। সভার সঞ্চালনা করেন সরকারি কলেজের বাংলা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মুন্সি আবু সাইফ।

এদিকে গতকাল রাত ৯টার দিকে শহীদ হাসান চত্বরে স্থানীয় স্মৃতিসৌধে মোমবাতি প্রজ্জলন করা হয়েছে। জেলা প্রশাসন, জেলা পুলিশ, আওয়ামী লীগ ও সহযোগীসহ বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষে এ কর্মসূচি পালন করা হয়। এরপর শহীদদের স্মরণে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। এ সময় জেলা প্রশাসনের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মনিরা পারভীন। জেলা পুলিশের পক্ষে পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর) কনক কুমার দাস। আওয়ামী লীগের পক্ষে জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক সাবেক মেয়র রিয়াজুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার টোটন, পৌর আওয়ামী লীগের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক পৌর মেয়র জাহাঙ্গীর আলম মালিক খোকন, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মুন্সি আলমগীর হান্নান। মুক্তিযোদ্ধা সংসদ জেলা ইউনিট কমান্ডের সাবেক কমান্ডার আবু হোসেন। এছাড়া বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ মোমবাতি প্রজ্জলনে অংশ নেন।

  1. ডিঙ্গেদহ প্রতিনিধি জানিয়েছেন, গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ৮টায় ডিঙ্গেদহ বাজারস্থ চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে এ কর্মসূচির আয়োজন করে। এ সময় উপস্থিত ছিলেন চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল মান্নান নান্নু, সাধারণ সম্পাদক শাহাদত হোসেন, শংকরচন্দ্র ইউপি চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রহমান, শংকরচন্দ্র ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগাঠনিক সম্পাদক শওকত মাহামুদ, উদীচী ডিঙ্গেদহ শাখার সভাপতি আব্দুল হান্নান, সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম, আব্দুস ছাত্তারসহ সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা।

মুন্সিগঞ্জ প্রতিনিধি জানিয়েছেন, চুয়াডাঙ্গার মোমিনপুরের শহীদ রবিউল ইসলাম মিলনায়তনে জেলা কৃষকলীগের উদ্যোগে ১৯৭১ সালে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর হাতে নিহত সকল শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনায় দোয়া মাহফিল ও আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়া এক মিনিট নীরবতা ও মোমবাতি প্রজ্বলন করা হয়। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জেলা কৃষকলীগের সিনিয়র সহসভাপতি তৌহিদুর রহমান মল্লিক চন্দন। প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা কৃষক লীগের সভাপতি গোলাম ফারুক জোয়ার্দ্দার। বিশেষ অতিথি ছিলেন সহসভাপতি আক্তার হোসেন, জেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান কবীর, সহ-প্রচার সম্পাদক জাকারিয়া আলম, সহ-দফতর সম্পাদক শেখ মিমন আহমেদ শাহীন, সদর উপজেলা কৃষক লীগের আহ্বায়ক আব্দুল মতিন দুদু, চুয়াডাঙ্গা পৌর কৃষক লীগের সভানেত্রী ঝর্ণা আহমেদ, মোমিনপুর ইউনিয়ন কৃষক লীগের সভাপতি হুমায়ুন কবির, সাধারণ সম্পাদক ইকরামুল হক। উপস্থিত ছিলেন চিৎলা ইউনিয়ন কৃষক লীগের সভাপতি আব্দুর রশিদ, সহ-সভাপতি সফিকুল ইসলাম, মিনাজ উদ্দিন, সদস্য লাল্টু, আলুকদিয়া কৃষক লীগের সভাপতি শাহীন বিশ্বাস, খাদিমপুর কৃষক লীগের দফতর সম্পাদক হাসেম মল্লিক। অনুষ্ঠান পরিচালনায় ছিলেন আশিকি ফারুক।

ভালাইপুর প্রতিনিধি জানিয়েছেন, আলমডাঙ্গার গোকুলখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে আলোচনাসভায় সভাপতিত্ব করেন ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ ও গোকুলখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি রবিউল হক ঝন্টু। প্রধান অতিথি ছিলেন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহসভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুজ্জামান নান্টু। বিশেষ অতিথি ছিলেন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোজাম্মেল হক, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাউছার আলী বিশ্বাস, সহকারী শিক্ষক মিয়া জাফর, সাহাবুদ্দীন প্রমুখ। দোয়া পরিচালনা করেন মাওলানা সামছদ্দীন। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন সহকারী শিক্ষক হামিদুল।
আলমডাঙ্গা অফিস জানিয়েছে, দিবসটি উপলক্ষে বৃস্পতিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে আলমডাঙ্গা বধ্যভূমিতে ফুলেল শ্রদ্ধা জানান উপজেলা পরিষদ, উপজেলা প্রশাসন, আলামডাঙ্গা থানা পুলিশ, আলমডাঙ্গা মুক্তিযোদ্ধা সংসদসহ বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠান। শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে শহীদদের স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। এরপর ’৭১ সালের স্বাধীনতাযুদ্ধে বীর শহীদদের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনায় বিশেষ দোয়া করা হয়।
পরে উপজেলা পরিষদের হলরুমে ২৫ মার্চ গণহত্যা দিবস উপলক্ষে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের নিয়ে স্মৃতিচারণ ও আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনাসভায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার পুলক কুমার ম-লের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান আইয়ুব হোসেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাড. সালমুন আহমেদ ডন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কাজী মারজাহান নিতু, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) হুমায়ন কবীর, অফিসার ইনচার্জ আলমগীর কবীর, বীর মুক্তিযোদ্ধা অ্যাড. আব্দুর রশিদ মোল্লা, সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা শফিউর রহমান জোয়ার্দ্দার সুলতান, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল কুদ্দুস, বীর মুক্তিযোদ্ধা ময়নদ্দিন, বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ নুর মোহাম্মদ জকু, ইউপি চেয়ারম্যান আবু সাঈদ পিন্টু, নুরুল ইসলাম প্রমুখ। সন্ধ্যায় বধ্যভূমিতে শহীদদের স্মরণে মোমবাতি প্রজ্জ্বলন করা হয়।

অপরদিকে, আলমডাঙ্গায় ছাত্রলীগের উদ্যোগে আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিকেলে ২নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের আয়োজনে বিটিম মাঠে অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ছাত্রলীগ নেতা সামাল হোসেন সাগর। প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাড. সালমুন আহমেদ ডন। বিশেষ অতিথি ছিলেন আলমডাঙ্গা সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি আশরাফুল হক, পৌর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নাহিদ হাসান তমান, ওয়ার্ড যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নুর আলম, বাপ্পি, জীবন, উপজেলা ছাত্রলীগের দফতর সম্পাদক আনিসুজ্জামান রিমন, কলেজ ছাত্রলীগের উপ-প্রচার সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল হোসাইন বাদশা প্রমুখ। উপস্থাপনায় ছিলেন কলেজ ছাত্রলীগের যুগ্মসম্পাদক হাসানুজ্জামান হাসান।

দর্শনা অফিস জানিয়েছে, দর্শনা পৌর আ.লীগের কার্যালয়ে জাতীয়, দলীয় ও শোক পতাকা উত্তোলন করা হয়। দর্শনা রেল বাজারের ফুলতলা চত্বরে সন্ধ্যায় অনুষ্ঠিত হয়েছে শোকসভা। রাত ৮টায় দর্শনায় বিদ্যুৎ বিহীন অবস্থায় মোমবাতি প্রজ্জল করা হয়। দর্শনা রেলবাজার ফুলতলা চত্বরে গণহত্যা দিবসের আলোচনাসভা ও মোমবাতি প্রজ্জলন র‌্যালিতে অংশ নেন চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের সংসদ সদস্য হাজি আলী আজগার টগর, দামুড়হুদা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলি মুনছুর বাবু, দর্শনা পৌর মেয়র মতিয়ার রহমান, চুয়াডাঙ্গা জেলা পরিষদের সাবেক প্রশাসক মাহফুজুর রহমান মঞ্জু, মুক্তিযোদ্ধা সংগঠক কমরেড অ্যাড. শহিদুল ইসলাম, জাসদের কেন্দ্রীয় নেতা আনোয়ারুল ইসলাম বাবু, সৈয়দ মজনুর রহমান, আ.লীগ নেতা হাজি জয়নাল আবেদীন, আতিয়ার রহমান হাবু, দর্শনা নাগরিক কমিটির সদস্য সচিব গোলাম ফারুক আরিফ, জেলা পরিষদের সদস্য মুন্সি সিরাজুল ইসলাম, মুকুল মিয়াজি, কেরুজ শ্রমিক-কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি ফিরোজ আহমেদ সবুজ, দর্শনা পৌর প্যানেল মেয়র রবিউল হক সুমন, রেজাউল ইসলাম, হাসান খালেকুজ্জামান, সাবির হোসেন মিকা, এনামুল কবির, মনির সরদার, বিল্লাল হোসেন, আশুর উদ্দিন, দামুড়হুদা উপজেলা যুবলীগের সভাপতি আব্দুল হান্নান ছোট, সহসভাপতি সোলায়মান কবির, সহসম্পাদক আব্দুল মান্নান খান, দর্শনা পৌর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ আসলাম আলী তোতা, সহসভাপতি মামুন শাহ, দামুড়হুদা উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আরিফুল ইসলাম মল্লি¬ক, দর্শনা পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি রফিকুল ইসলাম ববি, কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক তোফাজ্জেল হোসেন তপু, রিপন, মিল্লাত, রাসেল, লোমান, নাজিম, প্রভাত, রায়হান, অপু সরকার প্রমুখ। রাত ৯টা ১ মিনিটে আলোবিহীন মোমবাতি প্রজ্জলন করা হয়।


জীবননগর অফিস জানিয়েছে, জীবননগরে উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ১৯৭১ সালে ভয়াল ২৫ মার্চে নিরস্ত্র ও ঘুমন্ত বাঙালির ওপর পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর নৃশংস হত্যাযষ্ণ ও ভয়াবহতা নিয়ে আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান হাজি হাফিজুর রহমান। ইউএনও এসএম মুনিম লিংকনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক উপাধ্যক্ষ নজরুল ইসলাম, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম ঈশা, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আয়েসা সুলতানা লাকি ও থানা অফিসার ইনচার্জ সাইফুল ইসলাম। এছাড়াও সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার নিজামউদ্দিন, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি নাসির উদ্দিন, প্রেসক্লাব সাধারণ সম্পাদক এম আর বাবু, পৌর কাউন্সিলর শেখ জয়নাল আবেদীন, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সেলিমা আক্তার সিমু, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শারমিন আক্তার, উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান, উপজেলা পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা হাবিবুর রহমান, সাংবাদিক সালাউদ্দীন কাজল ও চাষি রমজান বক্তব্য রাখেন। সভা সঞ্চালনা করেন উপজেলা রিসোর্স সেন্টারের ইন্সট্রাক্টর জামাল হোসেন।

মেহেরপুর অফিস জানিয়েছে, মেহেরপুর জেলা প্রশাসন, জেলা আওয়ামী লীগ, জেলা সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট, জেলা ছাত্রলীগ, মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগ, মৃত্তিকা গ্রুপ থিয়েটারের সম্মিলিত আয়োজনে মোমবাতি ও মশাল প্রজ্জ্বলন করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার দিকে মেহেরপুর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্বরে মোমবাতি প্রজ্জ্বলন করেন তারা। এ সময় বক্তব্য রাখেন মেহেরপুরের জেলা প্রশাসক ড. মোহাম্মদ মুনসুর আলম খান। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মেহেরপুর স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক মৃধা মোহাম্মদ মোজাহিদুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জামিরুল ইসলাম, সদর উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা মাসুদুল আলম, জেলা জজ আদালতের পিপি পল্লব ভট্টাচার্য, প্রফেসর হাসানুজ্জামান মালেক, মেহেরপুর জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সম্পাদক অ্যাড. এসএম ইব্রাহীম শাহীন, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আবদুস সালাম বাঁধন, মেহেরপুর সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি আদিব হসেন আসিফ, সাধারণ সম্পাদক কুতুবউদ্দিন আহমেদ, মেহেরপুর জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্মআহ্বায়ক মতিউর রহমান মতিন, মৃত্তিকা গ্রুপ থিয়েটারের সভাপতি মানিক প্রমুখ।

অপরদিকে, গণহত্যা দিবসে শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এই দিনটিকে স্মরণ করে টিএইচএফ, মেহেরপুর ড. শহীদ সামসুজ্জোহা পার্কে গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেল ৫টায় ভয়াবহ কালোরাত্রি অপারেশন সার্চ লাইটখ্যাত গণহত্যা প্রতিকী প্রদর্শনী করে। এই প্রতিকী প্রদর্শনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন আনোয়ারুল হাসান, তানজীমুল হাসান, শামীম হাসান, আব্দুর রাজ্জাক প্রমুখ।

এদিকে, গণহত্যা দিবস উপলক্ষে সেক্টর কমান্ডারস ফোরাম মুক্তিযুদ্ধ ৭১ মেহেরপুর জেলা শাখার উদ্যোগে মোমবাতি প্রজ্জ্বলন করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় মেহেরপুর জেলা মুক্তিযোদ্ধা ভবনের সামনে এ আয়োজন করেন তারা। এ সময় বক্তব্য রাখেন সেক্টর কমান্ডারস ফোরাম মুক্তিযোদ্ধা ৭১ মেহেরপুর জেলা শাখার সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল হুদা, সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা ক্যাপ্টেন আব্দুল মালেক, মেহেরপুর জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহসভাপতি আব্দুল হালিম, সদর উপজেলা সেক্টর কমান্ডারস ফোরাম মুক্তিযুদ্ধ ৭১’র সাধারণ সম্পাদক নুরুল হক প্রমুখ।

গাংনী প্রতিনিধি বিএম লিটন জানিয়েছেন, ২৫ মার্চের কালরাত্রি স্মরণ ও আন্তর্জাতিক গণহত্যা দিবস হিসেবে স্বীকৃতির দাবিতে গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় গাংনী উপজেলা ও পৌর ছাত্রলীগের উদ্যেগে গাংনী উপজেলা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে মোমবাতি প্রজ্জ্বলন করা হয়। গাংনী পৌর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোহনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন গাংনী উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আমিনুল ইসলাম সেন্টু ও পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি ডালিম রানা। অনুষ্ঠানে গাংনী উপজেলা ও পৌর ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।
মুজিবনগর প্রতিনিধি সোহাগ মন্ডল জানিয়েছেন, মুজিবনগর উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় উপজেলা হলরুমে ২৫মার্চ গণহত্যা দিবস উপলক্ষে আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার সুজন সরকারের সভাপতিত্বে ও সমাজ সেবা অফিসার আব্দুর রবের সঞ্চলনায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন সহকারী কমিশনার মুজিবনগর (ভূমি) নাজমুল আলম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও মহাজনপুর ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ আমাম হোসেন মিলু, যুব উন্নয়ন অফিসার বিপ্লব কুমার কু-ু, বীর মুক্তিযোদ্ধা আহসান আলী খান প্রমুখ। বিকেল ৫টায় উপজেলা পরিষদ চত্বরে গণহত্যা ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। সুবিধাজনক সময়ে ২৫ মার্চ রাতে নিহতদের স্মরণে বিশেষ মোনাজাত ও প্রার্থনা করা হয়। এছাড়া প্রতিটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের কণ্ঠে ২৫ মার্চ গণহতার স্মৃতিচরণ ও আলোচনাসভা করা হয়।