সাধারণ মানুষকে স্বাস্থ্য সেবা দিতে গঠিত হলো ’আমাদের চুয়াডাঙ্গা ফাউন্ডেশন

স্টাফ রিপোর্টারঃ করোনায় মানুষকে জরুরি স্বাস্থ্য সেবা দিতে মিনিস্টার গ্রুপের চেয়ারম্যান এম এ রাজ্জাক খান রাজ এর নিজস্ব উদ্যোগে ’আপনার সুরক্ষায় আমরা’- এই প্রতিপাদ্যকে লালন করে ’আমাদের চুয়াডাঙ্গা ফাউন্ডেশন’এর যাত্রা শূরু করল। ফাউন্ডেশনটির মুখ্য উদ্দেশ্য হলো জরুরি স্বাস্ব্য সেবা প্রদান। আর সে লক্ষ্যকে সামনে রেখে চুয়াডাঙ্গা জেলার খান মহলে চালু করা হয়েছে অস্থায়ী ‘জরুরী স্বাস্থ্য সেবা’। মিনিস্টার গ্রুপের চেয়ারম্যান ও এফবিসিসিআই এর সহ-সভাপতি এবং বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় অর্থ ও পরিকল্পনা বিষয়ক উপ কমিটির সদস্য এম এ রাজ্জাক খান রাজের সভাপতিত্বে ১৩ জুলাই মঙ্গলবার সন্ধ্যায় পলাশপাড়ার খান মহলে এই অস্থায়ী স্বাস্থ্য সেবার উদ্বোধন করেন চুয়াডাঙ্গার জেলা প্রশাসক মো. নজরুল ইসলাম সরকার এবং একইসাথে যাত্রা শুরু করে চুয়াডাঙ্গা ফাউন্ডেশন।

চুয়াডাঙ্গাবাসী ০১৪০৪৪৩৩৮৮৮ নম্বরে কল করলেই বিনামূল্যে পৌঁছে যাবে জরুরি অক্সিজেন সেবা । ‘জরুরী স্বাস্থ্য সেবা’ সেন্টারটি থেকে প্রাথমিকভাবে শুধু চুয়াডাঙ্গাবাসীদেরকে বিনা খরচে চিকিৎসা সেবা ও ঔষধ প্রদান করা হবে। অভিঙ্গ চিকিৎসক ও চুয়াডাঙ্গা বিএমএ ‘র সভাপতি ডা. মার্টিন হীরক চৌধুরী ও অন্যান্য বিশিষ্ঠ চিকিৎসকগন নিয়মিত সকাল-সন্ধা সকল ধরনের রোগীর চিকিৎসা সেবা অব্যাহত রাখবেন।পরবর্তীতে ক্রমান্বয়ে দেশব্যাপী এই সেবা ছড়িয়ে দেওয়া হবে।


‘জরুরী স্বাস্থ্য সেবা’ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক মো. নজরুল ইসলাম সরকার এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, চুয়াডাঙ্গা জেলা পুলিশ সুপার মো. জাহিদুল ইসলাম, সিভিল সার্জন ডা.এ এস এম মারুফ হাসান, মেয়র জাহাঙ্গীর আলম মালিক, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম- সম্পাদক ও সাবেক মেয়র মো.রিয়াজুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার টোটন, চুয়াডাঙ্গা শাখার বিএমএ-এর সভাপতি ডা. মার্টিন হীরক চৌধুরী, চুয়াডাঙ্গা প্রেসক্লাবের সভাপতি সরদার আল-আমিনসহ প্রমুখ ব্যক্তিবর্গ।
চুয়াডাঙ্গার জেলা প্রশাসক মো. নজরুল ইসলাম সরকার বলেন, “দেশের এই সংকটকালে নিজস্ব অর্থায়নে জরুরি সেবার এই উদ্যোগকে আমি সাধুবাদ এবং অভিনন্দন জানাই। এই সেবামূলক উদ্যোগের ফলে আশেপাশের যে কেউ এই সেবা গ্রহণ করে উপকৃত হবেন এবং জরুরি প্রয়োজনে নির্দিষ্ট নম্বরে কল করে অক্সিজেন সেবা নিতে পারবেন। যেটি এই সময়ে খুবই প্রয়োজনীয়। আমি এই ফাউন্ডেশনের উত্তর উত্তর সমৃদ্ধি কামনা করছি।”

জরুরী স্বাস্থ্য সেবা চালু করার বিষয়ে মিনিস্টার গ্রুপের চেয়ারম্যান এম এ রাজ্জাক খান রাজ বলেন, “করোনা মহামারি মোকাবিলায় সবাইকে নিজ অবস্থান থেকে এগিয়ে এসে সহায়তা করতে হবে। আর সে তাগিদ থেকেই ’আমাদের চুয়াডাঙ্গা ফাউন্ডেশন’-এর ব্যানারে সাধারণ মানুষকে স্বাস্থ্য সেবা দিতে এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। দুর্যোগের এই মুহুর্তে অন্য রোগে আক্রান্ত রোগীরাও তাদের চিকিৎসার জন্য প্রয়োজন অনুযায়ী চিকিৎসা সেবা পাচ্ছে না। যার কারণে আমরা এই জরুরি সেবা চালু করেছি। আর এটি হবে সম্পূর্ণ বিনা খরচে।”আমি ’আমাদের চুয়াডাঙ্গা ফাউন্ডেশন’ কে সঠিকভাবে পরিচালানার জন্য চুয়াডাঙ্গাবাসীর সার্বিক সহযোগিতা কামনা করছি।
এখন থেকে প্রতিদিন পলাশপাড়ার খান মহলে চুয়াডাঙ্গাবাসীকে প্রাথমিক ও জরুরি চিকিৎসা সেবা ও ঔষধ বিনামূল্যে প্রদান করা হবে এবং চুয়াডাঙ্গাবাসীর সেবায় সর্বদা নিয়োজিত থাকবে আামাদের চুয়াডাঙ্গা ফাউন্ডেশন।