স্টাফ রিপোর্টার: ‘জাতির পিতার সম্মান, রাখবো মোরা অম্লান’ এই প্রতিপাদ্যে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য ভাঙ্গার প্রতিবাদে ও দুষ্কৃতিকারীদের বিচারের দাবিতে প্রতিবাদ সভা করেছে চুয়াডাঙ্গার সকল দপ্তরের সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ। গতকাল শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের ডিসি সাহিত্য মঞ্চে এ প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকারের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন চুয়াডাঙ্গা জেলা ও দায়রা জজ রবিউল ইসলাম, পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ বজলুর রহমান, চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মিজানুর রহমান, সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হাবিবুর রহমান, জেলা প্রাথমিক সহকারী শিক্ষা অফিসার আব্দুর রহমানসহ বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তাবৃন্দ।
বক্তারা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য ভাঙ্গা ও অবমাননার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, বাংলাদেশে জাতির পিতার অবমাননা কল্পনাতীত। আমরা কোনো অবস্থাতেই সরকারি কর্মকর্তাবৃন্দ এ অবমাননা সহ্য করবো না। যে কোনো অবস্থা থেকেই জাতির পিতার সম্মান আমরা অক্ষুন্ন রাখবো। অসাম্প্রদায়িক চেতনায় বিশ্বাসী বাংলাদেশ যেখানে মৌলবাদী বা অন্যকোন অশুভ শক্তি যদি পরিস্থিতিকে অস্থিতিশীল করতে চাই, তাহলে সকলেই আমরা রুখে দাঁড়াবো।
এ সময় চুয়াডাঙ্গার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) জাহিদুল ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট সাজিয়া আফরিন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) আবু তারেক, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর) কনক কুমার দাস, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (দামুড়হুদা সার্কেল) আবু রাসেল, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক আলী হাসান, এনএসআই এর উপ-পরিচালক জিএম জামিল সিদ্দিকসহ জেলা পর্যায়ের সকল বিভাগের সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
এদিকে, ‘জাতির পিতার সম্মান, রাখবো মোরা অম্লান’ এই প্রতিপাদ্যে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য ভাঙ্গার প্রতিবাদে ও দুষ্কৃতিকারীদের বিচারের দাবিতে প্রতিবাদ সভা করেছে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা প্রশাসন। চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ সাদিকুর রহমানের নেতৃত্বে গতকাল শনিবার সকাল সাড়ে ১০ টায় সদর উপজেলা চত্বরে এক প্রতিবাদ সমাবেশ ও মানববন্ধনে অংশগ্রহন করেন সদর উপজেলা সকল কর্মকর্তা-কর্মচারিবৃন্দ।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার বিকাশ কুমার সাহা, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার উত্তম কুমার কুন্ডু, ইপজেলা যুবউন্নয়ন অফিসার জাহাঙ্গীর আলম, সিনিয়র উপজেলা মৎস্য অফিসার ইব্রাহিম হামিদ শাহিন, উপজেলা প্রকৌশলী আরিফউদ্দৌলা, উপজেলা পল্লি উন্নয়ন অফিসার একেএম আমিনুল ইসলাম, উপজেলা পরিসংখ্যান অফিসার বিল্লাল হোসেন, একাডেমিক সুপারভাইজার সোহেল আহম্মেদসহ সদর উপজেলা পরিষদের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ।