প্রায় ১০০টি দেশে ছড়িয়েছে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট: ডব্লিউএইচও

পশ্চিমাঞ্চল অনলাইন ডেস্কঃমহামারি করোনার অতি সংক্রামক ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট সর্বপ্রথম শনাক্ত হয় ভারতে। যার প্রভাবে বিপর্যস্ত দেশটি। ধরনটি এখন বিশ্বের প্রায় ১০০টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে। এ নিয়ে সতর্ক করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিইএইচও)।

আগামী মাসগুলোতে করোনার অতিসংক্রামক এই ধরন বিশ্বজুড়ে আধিপত্য বিস্তার করবে বলে সতর্ক করে ডব্লিউএইচও জানিয়েছে, গত ২৯ জুন পর্যন্ত বিশ্বের ৯৬টি দেশে ডেল্টা ধরন পাওয়া গেছে। সংখ্যাটা আরও বেশিও হতে পারে। দেশগুলোতে ভাইরাসটির সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতি দেখা দিয়েছে। আক্রান্ত-মৃত্যুর সঙ্গে বেড়েছে হাসপাতালে ভর্তি রোগীর সংখ্যাও।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে, ব্যক্তি ও কমিউনিটি স্তরের জনস্বাস্থ্য, সামাজিক পদক্ষেপ, সংক্রমণ রোধ ও নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থার বিরুদ্ধে লড়াইয়ের বর্তমান উপায়গুলো এই ধরনটির বিরুদ্ধেও কার্যকর। কিন্তু স্বল্পহারে টিকা দিয়ে এটির প্রকোপ কমাতে অনেক সময় লাগবে। তাই পদক্ষেপ আরও বাড়াতে হবে।

এ বিষয়ে সম্প্রতি ডব্লিউএইচও মহাপরিচালক তেদ্রোস আধানম গেব্রেয়াসুস বলেছেন, এখন পর্যন্ত করোনার সবচেয়ে ভয়াবহ ধরন ডেল্টা। বিশেষ করে যেখানে টিকা প্রদানের হার কম সেখানেই এটি দ্রুত ছড়াচ্ছে।

বর্তমানে ডেল্টা ধরন নিয়ে বিশ্ব অনেক উদ্বিগ্ন উল্লেখ করে তিনি বলেন, কোভিড-১৯ টিকা গ্রহণ না করা ব্যক্তিরাই এটিতে বেশি সংক্রমিত হচ্ছেন। যা নিয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাও উদ্বিগ্ন।

সংস্থাটির তথ্যমতে, করোনার চারটি ধরনের মধ্যে আলফা প্রথম শনাক্ত হয় যুক্তরাজ্যে, যা বিশ্বের ১৭২টি দেশে ছড়িয়েছে। বিটা প্রথম শনাক্ত হয় দক্ষিণ আফ্রিকায় এবং ছড়িয়েছে ১২০টি দেশে। ডেল্টা প্রথম শনাক্ত হয় ভারতে এবং ছড়িয়েছে ৯৬টি দেশে। গামা প্রথম শনাক্ত হয় ব্রাজিলে এবং ৭২টি দেশে ছড়িয়েছে।