কার্পাসডাঙ্গা/মদনা প্রতিনিধি:চুয়াডাঙ্গা জেলার দামুড়হুদা উপজেলার মদনা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি শফিকুল ও প্রধান শিক্ষক সামসুল আলম এর বিরুদ্ধে অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর পদে নিয়োগ দেবার নাম করে মদনা গ্রামের সিরাজুল ইসলামের ছেলে আ:জব্বারের কাছে ৬ লক্ষ ৯০ হাজার টাকা নিয়ে আত্মসাত করার অভিযোগ উঠেছে।এ বিষয়ে দৈনিক পশ্চিমাঞ্চল পত্রিকায় বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ প্রকাশিত হলে বিদ্যালয়টির সভাপতি নিজেকে বাঁচাতে ও তাঁর আপন ভাই এর বউকে কে বিদ্যালয়ে যোগদান করাতে বিভিন্ন মহলে দৌড়ঝাপ শুরু করেছে বলে জানা গেছে ।উল্লেখ থাকে যে, গত ২৮-৭-৩০ তারিখে মদনা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর ও কম্পিউটার ল্যাব  অপারেটর পদে নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে মদনা মাধ্যমিক বিদ্যালয় কৃতপক্ষ।এ সময় অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর পদে নিয়োগ দিতে কয়েক দফায় প্রধান শিক্ষক ও সভাপতি মিলে আ:জব্বারের  কাছে ৬ লক্ষ ৯০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেই।গত ১৫-১০-২০ ইং তারিখে নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।আ:জব্বার অভিযোগ করে বলেন  পরীক্ষাতে সভাপতি তার আপন ভাই এর বউ আরিফন আক্তারকে নিয়োগ দিতে মরিয়া হয়ে উঠে।এবং সে মোতাবেক তার ভাই এর স্ত্রী পরীক্ষাতে প্রথম হয়  ।এবং তাকে বিদ্যালয়ে জয়েন করাতে সভাপতি মরিয়া হয়ে উঠেছে।সে আরো জানান তার গরু, গাছ, জমি বিক্রির টাকা দিয়ে সে এখন সর্বশান্ত।এ বিষয়ে বিদ্যালয়টির  সভাপতি ও প্রধান শিক্ষক তাদের বিরুদ্ধে তোলা অভিযোগ অস্বীকার করে আসছেন।আজ বুধবার সকালে মদনা গ্রামবাসীর উদ্যোগে পুনরায় নিয়োগ পরীক্ষার দাবীতে ও সভাপতির দূনির্তির বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হবে বলে জানা গেছে।।বিষয়টির প্রতি নজর দিয়ে এ নিয়োগ স্থগিত করে পুনরায় নিয়োগ পরীক্ষার জন্য  তদন্ত পূর্বক ব্যাবস্থা নিতে চুয়াডাঙ্গা  জেলা  প্রশাসক ও জেলা শিক্ষা অফিসারের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছে ভুক্তভোগী সহ সচেতন মহল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *