দামুড়হুদা থেকে তানজীর ফয়সালঃ করোনা মোকাবিলায় লড়াই করছে গোটা দেশ।নানা প্রতিকূলতার মাঝে সংকটে পড়ছে সুরক্ষা  সরান্জম । তারই পেক্ষিতে গতকাল সোমবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে দামুড়হুদা  উপজেলা স্ব্যস্থ্য কমপ্লেক প্রায় দেড় হাজার মাস্ক ও দেড় হাজার সাবান  বিতারণ করেছেন দামুড়হুদার চিৎলা  দেশ ইট ভাটার পরিচালক ও দামুড়হুদা সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী   হাজী মো: আব্দুল কাদির। আঃ কাদির দামুড়হুদা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পঃপঃ কর্মকর্তা  ডা.আবু হেনা মোহাম্মদ  জামাল শুভ’র হাতে এই মাস্ক ও সাবান  তুলে দেন ।এ সময় উপস্থিত ছিলেন আ.লীগ নেতা আব্দুল করিম,সজল আহমেদ, হাজী মো: আব্দুল কাদের জানান,করোনা শুরু থেকে মানুষের জন্য কাজ করার চেষ্টা করছি। এসময়  ড. আবু হেনা জামান মোহাম্মদ শুভ বলেন – দেশব্যাপী করোনার চরম আতঙ্কিত রয়েছেন। শীতের সিজনে করোনার প্রকোপ বৃদ্ধি পেতে পারেন বলে বিশেষজ্ঞের মতামত রয়েছে।আমাদের হাসপাতালের পক্ষে থেকে সর্ব সাধারণের মাঝে সরকারের দেওয়া সকল স্বাস্থ্য বিধি পালন করে চলাচলের জন্য অনুরোধ করে যাচ্ছি এবং কোন ভাবেই মাস্ক বিহীন বাহিরে চলাচলে না করতে আহব্বান করে যাচ্ছি। এছাড়া সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী আমাদের হাসপাতালে সেবা নিতে আসা রোগী  সাধারণের মাস্ক ছাড়া কোনো সেবা প্রদান করা হচ্ছে না। আমি উপজেলার সকল বৃত্তবান মানুষের নিকট নিজ নিজ স্থান থেকে দেশ ব্রিকস এর পরিচালক  আঃ কাদির এ ধরনের মহতি উদ্যোগকে  সন্মান জানাচ্ছি, আমি ব্যাক্তিগত ভাবে আনন্দিত যে তিনি রোগী সাধারণের  স্বাস্থ্য ঝুঁকির  বিষয় টি মাথায় রেখে  এগিয়ে এসেছেন। এ বিষয়ে দেশ ব্রিকস এর পরিচালক ও দামুড়হুদায় সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী আঃ কাদির বলেন- সারাবিশ্বের মানুষের মাাঝে আজ চরম অস্থিরতা বিরাজ করছে, মানুষ আজ চিহ্নিত। আমি আমার স্বাধ্য মতো আমার স্থান থেকে মানুষের পাশে থেকে সেবা দিয়ে চলছি।মহামারী করোনায় মানুষের আয় রোজকারে চরম ক্ষতি হয়েছে, বিশেষ করে  মধ্যবৃত্ত ও নিন্মবিত্ত পরিবারের জন্য খুবই ক্ষতি হয়েছে। সরকারের সকল সুবিধার পাশাপাশি  আমি যেটুকু পারছি মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে আর্থিক সহ সার্বিক সহযোগিতা করে যাচ্ছি। আপনারা সকলে আমার ও আমার পরিবারের  জন্য দোয়া করবেন। মহামারী করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধ করতে সরকারি নির্দেশনা মেনে চলুন, মাস্ক বিহীন চলাচল করবেন না।