দর্শনা অফিসঃ দ্বিতীয় দিনের মত দর্শনা কেরুজ চিনিকল শ্রমিক-কর্মচারী ও আখচাষী ফেডারেশনের কর্মবিরতি পালিত হয়েছে। দেশের ১৫টির মধ্যে ৬টি চিনিকল বন্ধের সরকারি সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে বাংলাদেশ চিনিকল শ্রমিক-কর্মচারী ফেডারেশন ও  আখচাষী ফেডারেশন কতৃক ঘোষিত ৫ দফা দাবি বাস্তবায়নের লক্ষ্যে মিল চত্বরে ৭/১৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত লাগাতার কর্মবিরতি ও প্রতিবাদ সমাবেশ এবং বিক্ষোভ মিছিলের কর্মসূচি শুরু হয়েছে ঐতিহ্যবাহী চিনিকল দর্শনা কেরু এ্যান্ড কোম্পানির চিনিকলে। গতকাল মঙ্গলবার সকাল ১০ টা থেকে দুপুর ১২ টা দর্শনা কেরুজ চিনিকলের ডিষ্ট্রিলারী বিভাগের গেটের সামনে কেরুজ চিনিকলের শ্রমিক-কর্মচারী ও আখচাষীরা স্বতঃস্ফুর্তভাবে এতে অংশ গ্রহন করে কর্মবিরতি পালন, প্রতিবাদ সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল করেন।
কেরুজ শ্রমিক-কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি ও বাংলাদেশ চিনিকল
শ্রমিক-কর্মচারী ফেডারেশনের সহ-সম্পাদক তৈয়ব আলীর সভাপতিত্বে এবং সহ-সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ চিনিকল শ্রমিক-কর্মচারী ফেডারেশনের সভাপতি ও কেরুজ শ্রমিক- কর্মচারী ইউনিয়নের সাধারন সম্পাদক মাসুদুর রহমান,
দর্শনা কেরুজ চিনিকলের সাবেক সভাপতি হাফিজুল ইসলাম, সাবেক সহ-সভাপতি ফারুক আহমেদ, সাবেক সাধারন সম্পাদক মনিরুল ইসলাম প্রিন্স, শ্রমিক নেতা ফিরোজ আহামেদ সবুজ। এসময় বক্তারা বলেন,
এ সময় বক্তারা বলেন, লাখ লাখ মানুষের রুটি-রুজীর একমাত্র অবলম্বন চিনিকলগুলো এদেশের  ইতিহাস-ঐতিহ্যের অংশ, যে গুলি এলাকার আর্থ-সামজিক উন্নয়নের ব্যাপক ভুমিকা রেখে চলেছে। সুতরাং চিনিকল বন্ধ করার সকল অপতৎপরতা প্রতিহত করা হবে। এরপরও দাবী-দাবা মানা না হলে আরো বৃহত্তর আন্দোলন গড়ে তোলা হবে। আজ বুধবার চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক বরাবর স্বারকলিপি প্রদান করবেন বলে জানান শ্রমিক নের্তৃন্দরা
এছাড়া উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন, দর্শনা কেরুজ চিনিকলের সহ-সাধারন সম্পাদক খবির উদ্দীন, আখচাষী ফেডারেশনের সভাতি আ.হান্নান, সহ-সভাপতি ওমর, সাধারন সম্পাদক বারী বিশ্বাস।