দর্শনা অফিসঃ দর্শনায় পৌর বিএনপি নেতাকর্মীদের উপর ছাত্রলীগের অতর্কিত হামলা চালিয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছে দর্শনা পৌর বিএনপির
নেতাকর্মীরা। এ ঘটনায় দর্শনা পৌর বিএপির ৩ নেতাকর্মী আহত হয়েছে।জানাগেছে, গত শুক্রবার রাত ৯ টার দিকে দর্শনা রেলবাজার দর্শনা দর্শন সিনেমা হল বর্তমানে দর্শনা পৌর আ.লীগের দলীয় কার্যালয়ের সামনে বিএনপি নেতা মিরাজুল ইসলাম মিরাজের পরিবহন কাউন্টারে দর্শনা পৌর বিএনপি, যুবদল ও ছাত্রদলের বেশকিছু নেতাকর্মীরা বসে রাজনৈতিক আলোচনা করছিল। এসময় ছাত্রলীগের নের্তৃবৃন্দরা তাদের উপর অতর্কিত হামলা চালায় বলে দলীয়-নেতাকর্মীরা অভিযোগ করে। এ ঘটনায় দর্শনা পৌর বিএনপির আবু সাঈদ, মোতালেব, লিয়ন সহ কয়েকজন আহত হয়। এরমধ্যে বিএনপি নেতা আবু সাঈদের একটি হাতও ভেঙ্গে যায়। চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা নিয়ে আহত সাঈদ বাড়ি
ফিরেছে।দর্শনা কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি নাহিদ পারভেজ বলেন,দর্শনা কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি নাহিদ পারভেজ বলেন, ঘটনার পর জানতে পারি যে, বেশ কয়েকদিন ধরে দর্শনা রেলবাজারের বিএনপি নেতা মিরাজারের পরিবহন কাউন্টারে বসে দলীয় নেতাকর্মীরা রাজনৈতিক আলোচনা করে আসছিল। তারা প্রতিনিয়ত রাজনৈতিক বিষয় নিয়ে নিজ দলীয় নেতাকর্মীদের সাথে উচ্চ স্বরে হাঁসি,ঠাট্টা ও চিৎকার চেচামেচি করে থাকে।ওইদিন রাজনৈতিক বিষয় নিয়ে নিজেদের মধ্যে বাকবিতন্ডার এক পর্যায় মারামারির ঘটনা ঘটে বলে জানতে পেরেছি। নিজের বিরোধের জের ছাত্রলীগের উপর চাপাতে তারা প্রচার করছে বলে লোকমুখে শুনছি। তবে ওই ঘটনার সাথে ছাত্রলীগ কোন ভাবে জড়িত নেই।
এ বিষয়ে দর্শনা থানার ইন্নপেক্টর (তদন্ত) শেখ মাহাবুবুর রহমান বলেন, হামলা বা মারামারির ঘটনা জানি না। হাতাহাতির একটি ঘটনার কথা শুনেছি এবং থানায় অভিযোগ করতে বলেছিলাম। পরে কেউ অভিযোগ করতে আসেনি।