মাহফুজ আলমঃশোনো, একটি মুজিবুরের থেকে লক্ষ মুজিবুরের কণ্ঠস্বরের ধ্বনি-প্রতিধ্বনি আকাশে বাতাসে ওঠে রণী, বাংলাদেশ, আমার বাংলাদেশ। ” গতকাল ১৫ আগস্ট। জাতীয় শোক দিবস। ইতিহাসের জঘন্যতম, নৃশংস হত্যাকাণ্ড ঘটে ১৯৭৫ সালের এই কালরাতে। এ দিন গোটা বাঙালি জাতিকে কলঙ্কিত করেছিল সেনাবাহিনীর উচ্ছৃঙ্খল কিছু বিপথগামী সদস্য। সেদিন রাতে ধানমণ্ডির ৩২ নম্বর সড়কের ঐতিহাসিক ভবনে ঘাতকের নির্মম বুলেট বিদ্ধ করে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবের বুক।

চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার নবগঠিত গড়াইটুপি ইউনিয়ন পরিষদ প্রাঙ্গণে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৬ তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে শোক আলোচনা সভা ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয়। গতকাল রবিবার সকাল ৮ টার সময় গড়াইটুপি ইউনিয়ন পরিষদ প্রাঙ্গনে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করে অনুষ্ঠান শুরু করা হয়। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ব্যানারের সামনে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন ইউপি পরিষদের চেয়ারম্যান শফিকুর রহমান রাজু সহ অন্যান্য সদস্যবৃন্দ। শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনায় দোয়া ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করেন।
উপস্থিত ছিলেন গড়াইটুপি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শফিকুর রহমান রাজু, সচিব হাফিজুর রহমান, মুক্তিযুদ্ধা হাসেম মাস্টার, উক্ত ইউনিয়ন পরিষদের সমস্ত মেম্বার সহ গ্রাম্য পুলিশ।

এদিকে তিতুদহ ইউনিয়ন পরিষদ প্রাঙ্গনে সকাল ১০.৩০ মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি ফলকের সামনে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন ইউপি পরিষদের প্রশাসক আব্দুল হান্নান, ইউপি সচিব জিয়াউর রহমান, তিতুদহ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি শুকুর আলী, চুয়াডাঙ্গা সদর থানা আওয়ামী লীগের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান টিপু, তিতুদহ ক্যাম্প ইনচার্জ আমিনুল ইসলাম, এসআই কুদ্দুসসহ, পরিষদের অন্যান্য সদস্যবৃন্দ। ফর মহান আল্লাহতালার দরবারে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আত্মার মাগফেরাত এর জন্য দোয়ার আয়োজন করা হয়।