বিশেষ প্রতিনিধি:ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর উপজেলার সাবদারপুর স্টেশনে দুটি মালবাহী ট্রেনের মুখোমুখি সংঘর্ষের পর খুলনার সাথে সারা দেশের রেল যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়। দীর্ঘ ১০ ঘণ্টা পর ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়েছে। এ ঘটনায় একটি ট্রেনের চালককে সাময়িক বরখাস্ত করেছে কর্তৃপক্ষ। গঠন করা হয়েছে তদন্ত কমিটি।

পশ্চিম রেলের পাকশী ডিভিশনের সহকারী ট্রাফিক অফিসার আব্দুস সোবহান জানান, সোমবার রাত ১টা ৪৩ মিনিটের সময় সাবদারপুর স্টেশনে খুলনা থেকে পার্বতীপুর গামী মালবাহী ট্রেনের সাথে ঈশ্বরদী থেকে খুলনাগামী অপর একটি মালবাহী ট্রেনের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে একটি ট্রেনের ইঞ্জিনসহ ৪টি তেল বোঝায় ট্যাংকার লাইনচ্যুত হয়। এরপর থেকে খুলনা থেকে ঢাকা, রাজশাহী, পার্বতীপুরসহ সারা দেশের ট্রেন যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়। খবর পেয়ে ঈশ্বরদী থেকে রিলিফ ট্রেন ঘটনাস্থলে পৌঁছে উদ্ধার কাজ শুরু করে। সকাল ১১টা ৩৫ মিনিটে ফের ট্রেন চলাচল শুরু হয়। তবে কোন হতাহতের ঘটনা ঘটেনি

রেলের পশ্চিমাঞ্চলের প্রধান পরিবহন কর্মকর্তা শহিদুল ইসলাম জানান, সকাল ৬ টার দিকে ঈশ্বরদী থেকে রিলিফ ট্রেন এসে উদ্ধার কাজ শুরু করে। প্রায় সাড়ে ৬ ঘণ্টার উদ্ধার কাজ শেষে প্রধান লাইন মেরামত ও লাইনচ্যুত হওয়া ওয়াগন উদ্ধার করার পর ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়। এ ঘটনায় খুলনা থেকে পার্বতীপুর গামী কেপি ২১ আর ট্রেনের চালক আনিছুর রহমানকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। ৫ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

এ ঘটনার পর স্থানীয় সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট শফিকুল আজম খান চঞ্চল, কোটচাঁদপুর উপজেলা চেয়ারম্যান শরিফুন্নেছা মিকিসহ রেলের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।