ঝিনাইদহ প্রতিনিধি:
ঝিনাইদহে দিন দিন করোনা সংক্রমন বাড়তে শুরু করেছে। প্রশাসন ৮ দিনের লকডাউন দেওয়ার ভিতরেও মানুষ নানান অজুহাতে বাইরে বের হতে দেখা গেছে। সে কারণে মানুষের মধ্যে সচেতনতা ও মাস্ক না পরার কারনেকরোনার সংক্রমন উদ্বেগজনকহারে বৃদ্ধি পাচ্ছে। গতকাল শনিবার ২৪ ঘন্টায় ৩ জনের মৃত্যু ও ১৪জন আক্রান্ত হয়েছে।
এদিকে হাসপাতালে নমুনা দিতে আসা করোনার লক্ষন নিয়ে যারা এসেছেন তারা সকাল থেকে অপক্ষো করেও অনেকে নমুনা দিতে না পেরে হয়রানী হয়ে চলে যাচ্ছেন যার কারনে তার ভোগান্তির স্বীকার হচ্ছেন বলে অভিযোগ করেছেন। তারা জানান, জেলায় একটি মাত্র করোনার নমুনার বুথ থাকার কারনে তারা সিরিয়ালে দাড়ালেও অনেক সময় সে নিয়ম মানা হচ্ছে না।
এদিকে স্বাস্থ্যবিভাগের তথ্যমতে, কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজে ঝিনাইদহের ৩৬টি নমুনা পাঠানো হয় তার মধ্যে ১৪ জন করোনা সনাক্ত হয়। কোভিড হাসপাতালে ৪৯ জন ভর্তি থেকে চিকিৎসা নিচ্ছে। তার মধ্যে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। এ পর্যন্ত মোট আক্রান্ত হয়েছে ৩হাজার ৯০৪ জন ও সুস্থ হয়েছে ২ হাজার ৯২৫ জন ও মোট মৃত্যু হয়েছে ৮১ জনের। আক্রান্তদের মধ্যে সদর উপজেলায় ৬জন, কালীগঞ্জে ৭ জন ও মহেশপুরে ১জন রয়েছে।
এ বিষয়ে হাসপাতালের সুপার ডাঃ হারুণ-অর রশিদ জানান, হাসপাতালে দিন দিন কোভিড আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। মানুষ সচেতন না হলে ভয়াবহের দিকে চলে যাবে বলে তিনি মন্তব্য করেন। সেই সাথে তরল অক্সিজেন যেন ঘাটতি না থাকে সে বিষয়ে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি কামনা করেন। মরদেহ ইসলামী ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে দাফন করা হবে বলে সিভিল সার্জন ডাঃ সেলিনা বেগম নিশ্চিত করেন।