ঝিনাইদহের নারী জাগরণের প্রবর্তক প্রভা- দীপ্তি রহমান 

ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধিঃ নারী জাতিকে মহান সৃষ্টিকর্তা মায়ের জাত হিসেবে সৃষ্টি করেছেন। পবিত্র কোরআনে নারী জাতিকে আল্লাহ পাক নারীর অধিকার ও মর্যাদা দিয়েই সৃষ্টি করেছেন। তারপরও পুরুষ শাসিত সমাজে নারীরা অনেক ক্ষেত্রেই বঞ্চিত হয়ে থাকেন। নারীরা শুধু ঘরবন্দি হয়ে থাকবেন শুধু ঘরের কাজ করবেন বাচ্চা মানুষ করবেন তা কিন্তু নয়। বর্তমান সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নারী,স্পীকার নারী, শিক্ষামন্ত্রী নারী তারপরও কেন জানি নারী আজ তাদের অধিকার ফিরে পাচ্ছে না। এখনো নারীরা রাস্তা ঘাটে নিরাপদ নয়। ঝিনাইদহে নারীদের অধিকার প্রতিষ্ঠায় নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছেন জাতীয় মহিলা সংস্থা ঝিনাইদহ জেলা শাখার চেয়ারম্যান ও জাতীয় মহিলা শ্রমিক লীগ ঝিনাইদহ জেলা শাখার সংগ্রামী আহবায়ক দীপ্তি রহমান। নারীদেরকে তিনি এখন এমন একটি জায়গায় পৌঁছাতে সমর্থ হয়েছেন যে নারীরা আজ সমাজের বোঝা নয়। একটা সময় ছিল নারী মুক্তি আন্দোলনের জন্য মিছিল করবেন সে জন্যও নারীরা ঘরের বাহির হতো না আর আজ নারীরা সরকারের সকল প্রকার উন্নয়নমূলক কাজে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন।মহান জাতীয় দিবস, মহান বিজয় দিবস, মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপন উপলক্ষে আয়োজিত র‍্যালীতে নারীদের উপস্থিতি দেখে অনেকটা অবাক হবার মতো মনে হয় তাদের অংশগ্রহণ দেখে । ঝিনাইদহ জেলা সাহিত্য পরিষদেও নারীরা কবিতা আবৃত্তি, গান করছেন, কবিতা লিখছেন সেখানেও দীপ্তি রহমানের অবদান রয়েছে তিনি নিজে আজীবন সদস্য হয়েছেন পরে অন্য নারীদের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন । গান করলে মানুষ খারাপ ভাববেন এই সমস্ত চিন্তা চেতনায় নারীরা আসতেন না তারপরও তাদেরকে ঘর থেকে বের করতে সমর্থ হয়েছেন দীপ্তি রহমান। স্বাধীনতা সাংস্কৃতিক পরিষদ,ঝিনাইদহ জেলা শাখার সংগ্রামী আহবায়ক দীপ্তি রহমান।সেখানেও তিনি থেমে নেই অপসংস্কৃতির করাল গ্রাস থেকে আমাদের দেশীয় সংস্কৃতিকে রক্ষার জন্য নিয়মিত ছেলে-মেয়েদের কে দিয়ে সংগীত, নৃত্য, অভিনয় ও সাহিত্য চর্চা করে যাচ্ছে। দীপ্তি রহমানের একটায় দাবি আকাশ সংস্কৃতির কাছে যেন আমাদের দেশীয় সংস্কৃতি হারিয়ে না যায় সে জন্য নারী পুরুষ সবাই কে মন প্রাণ উজাড় করে আমাদের দেশিয় সংস্কৃতি চর্চার ধারা অব্যাহত রাখতে হবে। করোনাকালিন ১ম ধাপেও যেমন নারী কর্মীদের নিয়ে মানবতার সেবায় হাত বাড়িয়ে ছিলেন করোনার ২য় ধাপ শুরু হওয়ার সাথে সাথে আবারও মাস্ক হাতে মাঠে দীপ্তি রহমান। মানুষের সেবায় মানবতার সেবায় অসামান্য অবদান রাখায় ঝিনাইদহের বেসরকারি সমাজ উন্নয়ন সংস্থা সিও পরিবারসহ বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠান থেকে সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছে দীপ্তি রহমানকে। নারীদের কে ভালো কাজ করার জন্য তাদেরকে জাগ্রত করতে পরেছেন বিধায় দীপ্তি রহমান নারী পুরুষ উভয়ের মাঝে জনপ্রিয় একজন মানবিক হৃদয়ের ব্যক্তি হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছেন।জাতীয় মহিলা শ্রমিক লীগের ঝিনাইদহ জেলার দায়িত্ব পাবার পর প্রত্যেকটি উপজেলায় নারীদের কে সংগঠিত করতে শ্রমিক লীগের আহবায়ক কমিটি গঠন করে চলেছেন। নারীদের সরব উপস্থিতিতে প্রতিটি অনুষ্ঠান সফল ভাবে শেষ করতে পারছেন দীপ্তি রহমান। বিভিন্ন সময় দেখা যায় অনেক গরিব অসহায় নারী ও তাদের পরিবারের ছেলে মেয়েদেরকে নিজের সামর্থ অনুযায়ী আর্থিক ভাবে সহযোগিতা করছেন। নারীদেরকে সাবলম্বী করতে নানা রকম কর্মসংস্থানের সুযোগ করে দিচ্ছেন দীপ্তি রহমান। নারী জাগরণের প্রবর্তক প্রভা দীপ্তি রহমানকে আজীবন মনে রাখবেন ঝিনাইদহবাসী।