স্টাফ রিপোর্টারঃ চুয়াডাঙ্গার জীববননগর উপজেলায় তিনটি প্রতিষ্ঠানের মালিককে জরিমানা করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে জাতীয় ভোক্তা সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক সজল আহম্মেদের নেতৃত্বে জীবননগর উপজেলার উথলী ও পেয়ারাতলা নামক স্থানে  ভ্রাম্যমাণ  অভিযানে চালানো হয় এবং বিভিন্ন অপরাধে তাদেরকে জরিমানা করা হয়। জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের চুয়াডাঙ্গা জেলা শাখার সহকারী পরিচালক সজল আহম্মেদ বলেন, গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে জীবননগর উপজেলার উথলী মোড়ে মেসার্স লিজা স্টোরে অভিযান চালানো হয়। সেখানে পূর্বে সতর্ক করা স্বত্তেও মেয়াদ উত্তীর্ণ ও মেয়াদ মুল্য বিহীন পণ্য বিক্রয়ের অপরাধে প্রতিষ্ঠান মানিককে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন-২০০৯ এর ৩৭, ৫১ ধারায় ৪ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।  পরবর্তীতে পেয়ারাতলা মোড়ে অভিযান চালিয়ে মেসার্স জাফর স্টোরকে মেয়াদ উত্তীর্ণ পণ্য ও মেয়াদ মুল্য বিহীন পণ্য বিক্রয় এবং পণ্যের মুল্যতালিকা প্রদর্শন না করার অপরাধে প্রতিষ্ঠান মানিককে ৩৭, ৩৮ ধারায় ২ হাজার টাকা এবং মেসার্স মেহেদী ফুডস বেকারীকে খাবারে অগ্রীম উৎপাদন তারিখ লেখা, যথাযথ মোড়কীকরণ বিধি লংঘন করা ও অস্বাস্থ্যকরভাবে খাদ্য দ্রব্য তৈরির অপরাধে ৩৭, ৪৩ ধারায় ১৫ হাজার টাকাসহ ০৩টি প্রতিষ্ঠানকে মোট ২১ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।
এছাড়াও আরও কয়েকটি প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন করা হয় এবং সবাইকে মুল্যতালিকা প্রদর্শন ও ক্রয় রশিদ সংরক্ষণ করতে বলা হয় এবং উপস্থিত জনসাধারণকে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন-২০০৯ সম্পর্কে অবহিত করা হয়।সহযোগিতায় ছিলেন জীবননগর উপজেলা স্যানিটারি ইন্সপেক্টর জনাব আনিসুর রহমান। 
নিরাপত্তার দায়িত্বে ছিলেন চুয়াডাঙ্গা জেলা পুলিশের একটি টিম। 
জনস্বার্থে এ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে বলে সজল আহম্মেদ জানান।