স্টাফ রিপোর্টার: জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে অনুষ্ঠিত অনার্স ৪র্থ বর্ষের ফল প্রকাশের দাবিতে চুয়াডাঙ্গায় শিক্ষার্থীরা মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় চুয়াডাঙ্গা সরকারী কলেজের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের সামনে এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে শিক্ষার্থীরা।
মানববন্ধনে শিক্ষার্থীরা জানায়, করানো পরিস্থিতির কারণে গত ১৮ই মার্চ থেকে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ছুটি ঘোষণা করায় জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স চতুর্থ বর্ষের চলাকালিন পরীক্ষা স্থগিত ঘোষণা করা হয়। ফলে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা আরো একধাপ পিছিয়ে পরে। আমাদের জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যায়নরত অধিকাংশ শিক্ষার্থীই নিম্ন মধ্যবিত্ত। পড়াশুনার জন্য প্রায় শিক্ষার্থীরাই বিশ্ববিদ্যালয়ের হোস্টেল কিংবা বিভিন্ন মেসে অবস্থান করে। বর্তমানে করানো পরিস্থিতির কারণে শহরে অবস্থানরত ৯৫ ভাগ শিক্ষার্থী আর্থিক এবং মানসিক দুর্বলতার জন্য গ্রামে গিয়ে নিজেদের বাড়িতে অবস্থান করছে। বর্তমান পরিস্থিতিতে সকল শিক্ষার্থীই মানসিক এবং আর্থিকভাবে বিপর্যস্ত।
সেশনজট নিরসনসহ চাকুরির পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করার সুযোগ পাওয়ার জন্য পরীক্ষা না নিয়ে কিছু বিকল্প ব্যবস্থা গ্রহন করলে আমরা অনেক উপকৃত হবো।
শিক্ষার্থীদের পক্ষে পরীক্ষার্থী সৌম্যজিতা শ্রুতি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ পরীক্ষা না নিয়ে বিকল্প পদ্ধতিতে শিক্ষার্থীদের ফলাফল ঘোষণা দিতে পারে। দ্বিতীয় ও তৃতীয় বর্ষের যাদের ইমপ্রুভমেন্ট আছে, সেটা বাকী বিষয়গুলোর ফলাফলের উপর ভিত্তি করে ন্যূনতম পাশ দিতে হবে। বিগত তিন বছরের ফলাফলের ভিত্তিতে সিজিপিএ নির্ধারণ করে ৪র্থ বর্ষের অনুষ্ঠিত পরীক্ষাগুলোর সঙ্গে সমন্বয় করে অনার্সের ফলাফল ঘোষণা করার দাবি জানান তারা। চলমান পাঁচটি পরীক্ষা খাতা মূল্যায়ন করা এবং বিশেষ সুবিধা দিয়ে বিশেষ পদ্ধতিতে বাকি চারটি বিষয়ের নম্বর মূল্যায়ন, মৌখিক ও বিজ্ঞান বিভাগের ব্যবহারিক পরীক্ষার ক্ষেত্রেও বিশেষ গড় পদ্ধতি অনুসরণ করা এবং সর্বোচ্চ ৩০ দিনের ভেতর ফলাফল ঘোষণা দাবি জানানো হয়।
এ সময় চতুর্থ বর্ষের ছাত্র আরিফুল ইসলাম, রাকিবুল ইসলাম, শাহিন মিয়া, এনামুল, কাওসারসহ চুয়াডাঙ্গা সরকারী কলেজের বিভিন্ন বিভাগের অর্নাস চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *