বঙ্গবন্ধুর গুণাবলীর শতভাগই ছিল ফজিলাতুন নেছা মুজিবের মধ্যে
স্টাফ রিপোর্টারঃগতকাল  ৮ই আগষ্ট  রবিবার বিকাল ৫.৩০ এ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ চুয়াডাঙ্গা জেলা শাখার আয়জনে চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে  বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের ৯১তম জন্ম বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগের সংগ্রামী ও বিপ্লবী সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা জাতীয় সংসদের সাবেক হুইপ ও চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের সংসদ সদস্য  সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন।
সভাপতির বক্তব্যে সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন এম পি বলেন,বঙ্গবন্ধুর গুণাবলীর শতভাগই আমরা বঙ্গমাতা ফজিলাতুন নেছা মুজিবের মধ্যে দেখতে পাই৷ বেগম মুজিবের কাছে সাহায্য চেয়ে কেউ কখনো খালি হাতে ফিরে যেত না।
জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান নেতাকর্মীর পাশাপাশি সাধারণ মানুষকেও প্রাণ উজাড় করে ভালোবাসতেন। বঙ্গবন্ধুর কর্মীবান্ধব সব গুণাবলী আমরা বেগম মুজিবের মধ্যে দেখতে পাই। দেশের স্বাধীনতা-সংগ্রামে বেগম মুজিবও বহু ত্যাগ-তিতিক্ষা করেছেন৷ দলীয় কর্মীদের সুখ-দুঃখের সঙ্গে ছিলেন তিনি। ছাত্র রাজনীতির সময়ও বেগম মুজিব তার পৈতৃক সম্পত্তির অর্জিত অর্থ দিয়ে বঙ্গবন্ধুকে সাহায্য করেছিলেন। রাজনৈতিক কাজে টাকা-পয়সা দিয়ে সাহায্য সহযোগিতা করতে তিনি তার গহনা পর্যন্ত বিক্রি করেছেন। বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক জীবনে অনেক কঠিন পরিস্থিতিতে বেগম মুজিব পরামর্শ দিয়ে সহযোগিতা করেছেন।
তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষণের প্রেরণাদাত্রী ছিলেন বঙ্গমাতা ফজিলাতুন নেছা মুজিব। তিনি বঙ্গবন্ধুকে বিবেকের ওপর ভর করে বক্তৃতা করবার জন্য পরামর্শ দিয়েছিলেন।
উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি খুস্তার জামিল, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক রিয়াজুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার টোটন,  এ্যাড. শামসুজ্জোহা, সাংগঠনিক সম্পাদক মুন্সি আলমগীর হান্নান ও মুফতি মাসুদুজ্জামান লিটু বিশ্বাস, দপ্তর সম্পাদক এ্যাড. আবু তালেব বিশ্বাস, আইন বিষয়ক সম্পাদক এ্যাড. নুরুল ইসলাম, বিজ্ঞান প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক এ্যাড. তালিম হোসেন, পৌর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আলাউদ্দিন হেলা,  চুয়াডাঙ্গা পৌর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি/সাধারণ সম্পাদক বৃন্দ, জেলা শ্রমিক লীগ সভাপতি আফজালুল হক বিশ্বাস,সাধারণ সম্পাদক রিপন মন্ডল, চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী যুবলীগের সাবেক আহ্বায়ক আরেফিন আলম রঞ্জু,চুয়াডাঙ্গা জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আব্দুল কাদের,রেজাউল করিম,সাবেক সাধারন সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম আসমান,যুবনেতা টুটুল, মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদিকা নুরুন্নাহার কাকলী, চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা মহিলা আওয়ামীলীগ এর সভানেত্রী শেফালী বেগম,জাতীয় মহিলা সংস্থার চেয়ারম্যান  নাবিলা রুকসানা ছন্দা, সদর উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শাহাজাদি মিলি, পৌর মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাফিয়া শাহাব, যুব মহিলা লীগের আহ্বায়ক আফরোজা পারভীন,  ছাত্রলীগ সভাপতি মোহাইমেন হাসান জোয়ার্দ্দার অনিক, সহ-সভাপতি সাহাবুল হোসেন, চুয়াডাঙ্গা সরকারী কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক তানিম হাসান তারেক, ছাত্রলীগ নেতা রিগান, সোহেল, আকাশ ও রানা সহ অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মিরা।
অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার সম্পাদক শওকত আলী বিশ্বাস এবং দোয়া পরিচালনা করেন সাংগঠনিক সম্পাদক মুফতি মাসুদ উজ্জামান লিটু।