চুয়াডাঙ্গায় সুবর্ণজয়ন্তী বই মেলার উদ্বোধন ও আলোচনা সভায় ডিসি নজরুল ইসলাম

বর্তমান এবং আগামী প্রজন্মকে বই পড়ার প্রতি আগ্রহ বাড়াতে হবে


স্টাফ রিপোর্টার: মহান স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে চুয়াডাঙ্গায় সুবর্ণজয়ন্তী বই মেলা-২০২১’র শুভ উদ্বোধন ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসনের আয়োজনে শিল্পকলা একাডেমি চত্বরে এ মেলা অনুষ্ঠিত হয়। এ উপলক্ষে গতকাল শুক্রবার বেলা ৫ টায় শিল্পকলা একাডেমির মুক্ত মঞ্চে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। অধ্যক্ষ আব্দুল মহিতের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, টুঙ্গিপাড়ার সেই খোকাই আমাদের আজকের বঙ্গবন্ধৃ শেখ মুজিবুর রহমান। কে জানতো তিনিই একদিন আমদের জাতির পিতা হবে। বাঙ্গালী জাতিকে একটি সুখি-সমৃদ্ধ সার্বভৌম এবং ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত বাংলাদেশ উপহার দিতে বঙ্গবন্ধুকে জীবনের বেশিরভাগ সময় জেলে কাটাতে হয়েছে। বঙ্গবন্ধুকে জানতে হলে আমাদের ইতিহাস পড়তে হবে। বর্তমান এবং আগামী প্রজন্মকে বই পড়ার প্রতি আগ্রহ বাড়াতে হবে। তিনি আরও বলেন, শুধু যে বঙ্গবন্ধুর ইতিহাস জেনে বসে থাকবেন তা হবে না। বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করতে হবে আগামী প্রজন্মকে।
চুয়াডাঙ্গা আবৃত্তি পর্ষদের সম্পাদক মনোয়ারা খুশির সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মনিরা পারভিন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর) কনক কুমার দাস, পৌর মেয়র জাহাঙ্গীর আলম মালিক খোকন, সদর উপজেরা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ সাদিকুর রহমান, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড চুয়াডাঙ্গা জেলা শাখার সাবেক কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধ নুরুল ইসলাম মালিক প্রমুখ। আরও উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সাজিয়া আপরিন, সাবেক কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু হোসেন, জেলা মার্কেটিং অফিসার শহিদুল ইসলাম, এনডিসি আমজাদ হোসেনসহ জেলা প্রশাসনের অন্যান্য কর্মকর্তাগন।
আলোচনা সভার আগে জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে ফিতে কেটে এ মেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। পরে প্রধান অতিথিসহ আমন্ত্রিত অতিথিরা বই মেলায় স্টলগুরো ঘুরে দেখেন। মেলায় মোট ১২ টি স্টল নিয়ে এ মেলায় প্রথম দিনে দর্শক ও ক্রেতাদের উপচেপড়া ভীড় লক্ষ করা গেছে।