স্টাফ রিপোর্টার: কেন্দ্রীয় যুবদলের সকল নেতৃবৃন্দের নামে নাশকতার মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে বিএনপির মহাসচীব মির্জা ফখরুল ইসলামের নির্বাচনী এলাকা চুয়াডাঙ্গায় বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী যুবদল চুয়াডাঙ্গা জেলা শাখার আয়োজনে গতকাল মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে জেলা শিল্পকলা একাডেমির সামনে চুয়াডাঙ্গা জেলা যুবদলের সভাপতি শরীফ উর জামান সিজার ও সাধারন সম্পাদক সাইফুর রসিদ ঝন্টু’র নেতৃত্তে ও বিকাল চারটায় সাহিত্য পরিষদ চত্তর থেকে যুগ্ন-সাধারন সম্পাদক চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম বিপ্লব ও সাংগঠনিক সম্পাদক জায়েদ মোঃরাজিব খান এর নেতৃত্তে পৃথক পৃথক বিক্ষোব মিছিলে পুলিশী বাধার মুখে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে জেলা শিল্পকলা একাডেমির সামনে চুয়াডাঙ্গা জেলা যুবদলের সভাপতি শরীফ উর জামান সিজার ও সাধারন সম্পাদক সাইফুর রসিদ ঝন্টু’র নেতৃত্তে থেকে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে বের হয়ে চৌরাস্তার অভিমুখে যাওয়ার সময় পোস্টঅফিসের সামনে পুলিশের বাধায় তারা এগোতে না পেরে পুনরায় শিল্পকলা একাডেমির সামনে ফিরে আসেন। পরে সেখানে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এতে করেন চুয়াডাঙ্গা জেলা যুবদলের সভাপতি শরিফ উর জামান সিজার’র সভাপতিত্বে জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক সাইফুর রশিদ ঝন্টুর সঞ্চালনায় প্রধান বক্তা ছিলেন জেলা যুবদলের সিনিয়র সহসভাপতি আশরাফ বিশ্বাস মিল্টু। বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা যুবদলের সহসভাপতি সোহেল আহমেদ মালিক সুজন, সহসভাপতি আরিফুজ্জামান পিন্টু, জেলা যুবদলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাজি রবিউল হক মল্লিক, বকুল হোসেন বকুল, সহসাধারণ সম্পাদক পিনু মুন্সি, সাইফুল ইসলাম সুমন, আচান শেখ, মাহাবুব হোসেন, আবদার হোসেন রাজু, সহসাংগঠনিক সম্পাদক সুমন, সহকোষাধ্যক্ষ অনিত হাসান মালিক, প্রচার সম্পাদক ইমরান হোসেন উজ্জ্বল, দফতর সম্পাদক মামুন উর-রশিদ টনিক, সহদফতর সম্পাদক হাসান বিশ্বাস আশা, সাইদুর রহমান, সহ-সাহিত্য প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক আশাদুজ্জামান টিটু, সহ-পল্লী উন্নয়ন ও সমবয় সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, মৎস্য ও পশু পালন বিষয় সম্পাদক সোহেল রানা টুটুল, সহস্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডা. আহসান হাবীব সুইট, জেলা যুবদলের সদস্য সাইফুল ইসলাম সেলিম, সজিব, শিপন, শিবলু, আব্দুর রশিদ মঞ্জু, সাহাবদ্দিন, টুটুল শাহ, মিজানুর রহমান মিজান, সুন্নত আলী, সামিউল আলিম রকি, আকুল হোসেন, চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা যুবদলের আহ্বায়ক রাহাত হাসান মালিক রাজিব, সদস্য সচিব সাজেদুর রহমান মিলন, যুগ্ম আহ্বায়ক হাসমত আলী, আশরাফ উদ্দিন রুবেল, মোস্তফা, আহসাব রকি, সদস্য মানোয়ার, মওলা, নাজমুল, সেলু বিশ্বাস, শাহাজামান আলী, ইনসান, মনিরুল ইসলাম মনির, ইউনিয়ন যুবদল নেতা আব্বাস আলী, মনিরুজ্জামান, সাজিদুর রহমান, মানোয়ার হোসেন, বাবুল আক্তার, আলমগীর, মুনছুর, সাদ্দাম, রিংকু, সজিব, খোকন, এনায়েত, মাসুদ, আশিক, মাহফুজ, মঈন, টিটু, আব্দুর রশিদ, কামরুল, কুদ্দুস, রফিক, শহিদ, রুবেল, মনি, কামাল, শামীম, টোকন মিয়া, টুটুল, পারভেজ, আনিচ, চুয়াডাঙ্গা পৌর যুবদলের আহ্বায়ক বিপুল হাসান হ্যাজি, যুগ্ম আহ্বায়ক মিলন আলী লিমন, সোলাইমান হক, লালন সরদার, সদস্য বকুল, ফুরাদ, লিংকন, রিয়াদ, রকি, হৃদয়, প্রজয়, বাপ্পি, জাহাঙ্গীর, আলামিন, আলমডাঙ্গা পৌর যুবদলের আহ্বায়ক নাজিম উদ্দিন মোল্লা, যুগ্ম আহ্বায়ক আব্দুল কাদের, আব্দুল আল মামুন, সদস্য মোখলেছুর রহমান মিলন, আলমডাঙ্গা উপজেলা যুবদলের নেতা শফিকুল আজম ডালিম, নূর আলামিন পলাশ, শামীম রেজা সাগর, জনি উদ্দিন, আলি কদর, ডা. লিপন, জুয়েল, জাহিদ হাসান, ফজলু, বাবু খান, আলিফ নূর রিন্টু, শহিদুল, একরামুল, আলমডাঙ্গা উপজেলা ছাত্রদলের সদস্য সচিব রাসেল আহমেদ, আলমডাঙ্গা কলেজ ছাত্রদলের আহ্বায়ক আশিকুর রহমান আশিক, পৌর ছাত্রদলের নেতা জাহিদ হাসান প্রমুখ।

অপরদিক বিকাল ৪ টার সময় চুয়াডাঙ্গা সাহিত্য পরিষদ চত্বরে সমবেত হয়ে মিছিল নিয়ে প্রধান সড়কে উঠলে পুলিশের বাধায় পুনরায় সাহিত্য পরিষদ চত্বরে সমাবেশে চুয়াডাঙ্গা জেলা যুবদলের যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক ও চিৎলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল সালাম বিপ্লব এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন চুয়াডাঙ্গা জেলা যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক জাহেদ মোহাম্মদ রাজিব খান, আরো বক্তব্য রাখেন চুয়াডাঙ্গা জেলা যুবদলের সহ-সভাপতি তরিকুল ইসলাম সোহেল, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মোখলেছুর রহমান মুকুল, জেলা যুবদলের সদস্য খায়রুল আলম, রফিকুল ইসলাম, চৌধুরী আলম বাবু, নাজমুল হক, সদর থানা যুবদলের নেতা ইমরান মহলদার রিন্টু, হামিদুল ইসলাম হামিদ, হাবিবুর রহমান জোয়ার্দার মানিক, আবু হেনা, পৌর যুবদলের যুগ্ম আহবায়ক অপু মালিক, আলমডনঙ্গা পৌর যুবদলের সদস্য সচিব মো;সাইফুদ্দিন আলম কনক,যুগ্ম আহবায়ক হাফিজুর রহমান, রোকনুজ্জামান রোকন, শামিম হাসান, সুমন, হাসান মালিক, আজিজুল আজিজ, শিপলু,আব্দুস সামাদ,ফজলু, মামুন,ফারুক।

উভয় গ্রুপের বক্তারা বলেন, নাশকতার মিথ্যা মামলাসহ বিএনপির অঙ্গ সংগঠনের সকল নির্বাচন কমিশন বার বার প্রহসনের নির্বাচনের মাধ্যমে দেশের মানুষের ভোটের অধিকারকে খর্ব করেছে। এরই ধারাবাহিকতায় ঢাকা ও সিরাজগঞ্জে প্রহসনের নির্বাচন হয়েছে। এসময় বক্তারা ঢাকায় গাড়ি পোড়ানোর ঘটনায় ষড়যন্ত্রমূলক কেন্দ্রীয় যুবদলের সভাপতি সাইফুল ইসলাম নিরব ও সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিন টুকুসহ দলীয় নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা করায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান। মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানান। বক্তারা আরও বলেন, এ অপকর্মের মাধ্যমে সরকার সারাদেশকে দ্রুততার সাথে সর্বনাশা পথেই হাটতে শুরু করেছে। এ সর্বনাশা পথ হচ্ছে এক ব্যক্তির শাসন প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে চিরদিনের জন্য বিরোধী দল ও ভিন্ন মতের অস্তিত্বের মূল্যপাটন ঘটানো। এ সরকার বিরোধী দল দমনে হয়রানি জুলুম নির্যাতন মিথ্যা মামলা গ্রেফতার খুন গুমকে হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করছে। মানুষের প্রতিবাদী কন্ঠের আঘাতে যেন অবদ্ধ মসনদের ভিত নড়ে না উঠে এই লক্ষ্য পূরণের লক্ষ্যে কেন্দ্রীয় সকল নেতৃবৃন্দের টার্গেট করা হয়েছে। ২০০৯ সাল থেকে বর্তমান সময় পর্যন্ত আওয়ামী লীগ সরকারের অধীনে দেশে যে ভয়ংকর দুর্শাসন চলছে তার অংশ হিসেবে যুবদল নেতাদের নামে মিথ্যা দায়ের করা হয়েছে। অবিলম্বে জাতীয়তাবাদী যুবদলের সকল নেতৃবৃন্দসহ বিএনপি ছাত্রদল স্বেচ্ছাসেবক দল অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দের নামে দায়েরকৃত মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের জোর দাবি জানান।