স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গায় গাঁজাসহ আটকের পর দু’জনকে ভ্রাম্যমাণ আদালতে কারাদন্ড দেয়া হয়েছে। গতকাল সোমবার সকালে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের অভিযানে তাদেরকে আটকের পর সাজা প্রদান করা হয়। সাজাপ্রাপ্তরা হলেন চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার হানুরবাড়াদি কাজীপাড়ার মৃত আয়নাল হকের ছেলে ঠান্ডু (৫০) এবং চুয়াডাঙ্গা জেলা শহরের বড় মসজিদপাড়ার মৃত আজিজুল ইসলামের ছেলে শফিকুল ইসলাম অপু (৩২)। সাজাপ্রাপ্তদের কারাগারে পাঠানো হয়েছে।
ভ্রাম্যমাণ আদালত সুত্রে জানা গেছে, গতকাল সোমবার সকাল ৭ টার দিকে গোপণ সংবাদের ভিত্তিতে চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট হাবিবুর রহমানের নেতৃত্বে জেলা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের পরিদর্শক আব্দুল্লাহ আল মামুন, উপ পরিদর্শক আবুল কালাম আজাদ ও সহকারি উপ পরিদর্শক আকবর হোসেন সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার হানুরবাড়াদিও কাজীপাড়ার ঠান্ডুর বাড়িতে অভিযান চালায়। এ সময় ২শ’ গ্রাম গাঁজাসহ তাকে আটক করা হয়। নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট হাবিবুর রহমান ভ্রাম্যমাণ আদালতে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে ঠান্ডুকে ৫শ’ টাকা জরিমানাসহ ১০ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন।
অপরদিকে, গতকাল সকাল ৮ টার দিকে গোপণ সংবাদের ভিত্তিতে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট আমজাদ হোসেনের নেতৃত্বে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের একই অভিযানিক দল জেলা শহরের বড় মসজিদপাড়ার শফিকুল ইসলাম অপুর বাড়িতে অভিযান চালিয়ে ১০ গ্রাম গাঁজাসহ তাকে আটক করে। নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট আমজাদ হোসেন ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে অপুকে ২শ’ টাকা জরিমানার পাশাপাশি ১৫ দিনের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করা হয়।
সাজাপ্রাপ্তদের গতকালই জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।
মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের পরিদর্শক আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, সাজাপ্রাপ্তদের মধ্যে ঠান্ডু এলাকার একজন মাদক ব্যবসায়ী এবং শফিকুল ইসলাম অপু একজন মাকদসেবী।
সহযোগীতায় ছিলেন ভ্রাম্যমাণ আদালতের বেঞ্চসহকারি আব্দুল লতিফ ও রুমানা সুলতানা।