করোনাভাইরাসের কারনে বিজয় দিবস ভিন্ন আঙ্গিকে পালিত হবে:কুচকাওয়াজ হবে না


স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গায় মহান বিজয় দিবস-২০২০ উপলক্ষে প্রস্তুতিমূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ উপলক্ষে গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টায় চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার। সভাপতির বক্তব্যে তিনি বলেন, করোনাভাইরাসের কারণে এ বছর বিজয় দিবসের অনুষ্ঠান কিছুটা ভিন্ন আঙ্গিকে পালন করা হবে। সূর্যোদয়ের সাথে সাথে ৩১বার তোপধ্বনির মাধ্যমে দিবসটির শুভ সূচনা করা হবে। স্মৃতিসৌধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে পুষ্পস্তবক অর্পন করা হবে। এবছর সরকারী নির্দেশনা অনুযায়ী কুচকাওয়াজ বাতিল করা হয়েছে। ভার্চুয়ালে আলোচনা সভা করা হবে। তাছাড়া, চিত্রাংকন, আবৃত্তি, উপস্থিত বত্তৃতা, রচনা প্রতিযোগীতাসহ বিভিন্ন প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত হবে। তিনি আরো বলেন, প্রতিবছর মুক্তিযোদ্ধাদের এক স্থানে এনে সংবর্ধনা দেওয়া হতো। এ বছর করোনাভাইরাসের কারণে এক স্থানে না আনলেও বাড়িতে বাড়িতে মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য শুভেচ্ছা উপহার সামগ্রী পাঠিয়ে দেওয়া হবে। ৭ ডিসেম্বর চুয়াডাঙ্গা মু্ক দিবস উপলক্ষে সন্ধ্যায় মোমবাতী প্রজ্জ্বলন করা হবে। শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবসও যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন করা হবে।
সভায় উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মনিরা পারভীন, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট সাজিয়া আফরিন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) জাহিদুল ইসলাম, সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আবু হোসেন। ভার্চুয়াললি জুম অ্যাপে যুক্ত থেকে বক্তব্য রাখেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) আবু তারেক, সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার নুরুল ইসলাম মালিক প্রমুখ।