চুয়াডাঙ্গার ভারপ্রাপ্ত জেলা জজ ও দুই স্টাফের জেলা থেকে প্রত্যাহারের দাবীতে চুয়াডাঙ্গায় জেলা আইনজীবী সমিতির প্রতিবাদ সমাবেশ


স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গায় আইনজীবীদের উপর হামলার প্রতিবাদ বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে চুয়াডাঙ্গা জেলা আইনজীবী সমিতি। মঙ্গলবার (২৩ মার্চ) বেলা ১২টায় জেলা আইনজীবী সমিতি ভবনের সামনে এ কর্মসূচী পালন করা হয়। কর্মসূচিতে অনতিবিলম্বে ভারপ্রাপ্ত জেলা ও দায়রা জজ বজলুর রহমান ও অফিস স্টাফ মাসুদুজ্জামান এবং জহুরুল ইসলামকে জেলা থেকে প্রত্যাহারের দাবী জানানো হয়েছে। প্রত্যাহার করা না হলে, চুয়াডাঙ্গা জেলা অচলসহ কঠোর আন্দোলনের হুসিয়ারি দিয়েছেন আইনজীবী নেতৃবৃন্দ।
জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাড. আলমগীর হোসেন বলেন, আমাদের আদালত ছেড়ে মাঠে আসার কথা নয়। কিন্তু আজ চারদিন ধরে আমরা রাস্তায় দাড়িয়েছি। আমরা প্রতিবাদ করার জন্য রাস্তায় দাড়িয়ে। আমরা দাবি জানাচ্ছি দুর্নীতিগ্রস্থ ভারপ্রাপ্ত জেলা ও দায়রা জজ মোহা. বজলুর রহমান ও দুর্নীতিগ্রস্থ অফিস স্টাফ মাসুদুজ্জামান মাসুদ ও জহুরুল ইসলামের মুখ চুয়াডাঙ্গার মাটিতে দেখতে চাইনা। নানা প্রলোভন দেখিয়ে বিচার প্রার্থীদের কাছ থেকে অর্থ আত্মসাত করে কোটি কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জন করেছে আদালতের নাজির মাসুদুজ্জামান ও বেঞ্চ সহকারী জহুরুল। তাদের মতো স্টাফদের কারণে এখন গ্রামগঞ্জের হাটবাজারে বিচার বেচাকেনা হয়। কর্মচারীরা বিচার বিভাগের বিভিন্ন বিষয়ে কলকাঠি নাড়ায়। সেই দুর্নীতিগ্রস্থ কর্মচরারীরা আমাদের আমাদের বিজ্ঞ আইনজীবীদের উপর লাঠিসোঠা নিয়ে হামলা করতেও দ্বিধাবোধ করেনা।
এ সময় জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাড. আলমগীর হোসেন বিক্ষোভসহ চুয়াডাঙ্গা জেলা অচলের কঠোর আন্দোলনের হুসিয়ারি দিয়ে বলেন, অনতিবিলম্বে এই হামলার সুষ্ঠু বিচার ও ভারপ্রাপ্ত জেলা ও দায়রা জজ বজলুর রহমান ও দুর্নীতিগ্রস্থ অফিস স্টাফ মাসুদুজ্জামান এবং জহুরুল ইসলামকে জেলা থেকে প্রত্যাহারের দাবী জানান।
জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারন সম্পাদক অ্যাড. তালিম হোসেনের পরিচালনায় প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, সিনিয়র আইনজীবী অ্যাড. মানি খন্দকার, অ্যাড. শফিকুল ইসলাম শফি, অ্যাড. হেদায়েতুল আসলাম, শামিম হোসেন ডালিম, অ্যাড. ওয়াহেদুজ্জামান বুলা, অ্যাড. আব্দুল মালেক, অ্যাড. আবুল বাসার, অ্যাড. সেলিম উদ্দদি খান, অ্যাড, রবিউল রহমান, অ্যাড. এমএম শাজাহান মুকুল প্রমুখ।
এদিকে, আইনজীবীদের চলমান এই আন্দোলনের কারণে ভোগান্তিতে পড়েছেন সাধারণ বিচারপ্রার্থীরা। তাঁদের, দাবি বিচার সেবা পাওয়ার জন্য অতিদ্রুত এই সমস্যা সমাধান করা হোক।
উল্লেখ্য, গত ১৮ মার্চ চুয়াডাঙ্গা আদালতে আইনজীবী ও জজশীপ কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মধ্যে পাল্টাপাল্টি হামলার ঘটনা ঘটে। সেদিনই জরুরী সভার ডাক দিয়ে অনির্দিষ্টকালের জন্য আদালত বর্জনের ঘোষনা দেন আইনজীবীরা। মঙ্গলবার অব্দি চারদিন ধরে আইনজীবীরা আন্দোলনে আছেন।