চুয়াডাঙ্গার বড়শলুয়ায় গরুতে জমির ধান খাওয়াকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ ধারালো অস্ত্রের কোপে উভয়পক্ষের ৩ জন জখম


স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গার বড়শলুয়ায় গরুতে জমির ধান খাওয়াকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। গতকাল মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ৫ টার দিকে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার তিতুদহ ইউনিয়নের বড়শলুয়া বন্দর মাঠে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ধারালো অস্ত্রের কোপে উভয়পক্ষের ৩ জন রক্তাক্ত জখম হয়েছে। আহতরা হলেন বড়শলুয়া বসতিপাড়ার মৃত আফছার আলীর ছেলে নজির আলী (৫৫) এবং একই এলাকার নায়েব আলী মন্ডল (৫০) ও তার ছেলে মিঠু (৩০)। আহতদের চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি রাখা হয়েছে।
সদর হাসপাতালে আহত নজির আলীর ছেলে হাবলু অভিযোগ করে বলেন, গতকাল বেলা সাড়ে ৫ টার দিকে তার বাবা নজির আলী গ্রামের বন্দরভিটার মাঠে যায় ধান ক্ষেতে পানি দিতে। এ সময় পাশের একটি মাঠের কিছু ধান অন্য একজনের গরুতে খেয়ে নিলে ওই দোষ চাপানো হয় নজির আলীর উপর। এ নিয়ে নায়েব আলী মন্ডল তার দুই ছেলে মিঠু ও মিন্টুর সাথে নজির আলীর বাকবিতন্ডার সৃষ্টি হয়। এরই একপর্যায়ে ধারালো অস্ত্র নিয়ে উভয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এতে নজির আলী, নায়েব আলী মন্ডল ও মিঠু রক্তাক্তা জখম হয়। স্থানিয়রা তাদেরকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নেয়।
জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. ওয়াহেদ মাহমুদ রবিন বলেন, ধারালো অস্ত্র দিয়ে তাদেরকে কোপানো হয়েছে। আহতদের মধ্যে নজির আলীর পিঠে ও বাম হাতে গুরুতর জখম হয়েছে। সেখানে অসংখ্য সেলাই দিতে হয়েছে। নায়েব আলী ও মিঠুর শরীকের কয়েকটি স্থানে হালকা জখম হয়েছে। আহতদের প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে হাসপাতালে ভর্তি রাখা হয়েছে। আহতদের অবস্থা আশঙ্কামুক্ত।