চুয়াডাঙ্গার বেগমপুরের আকন্দবাড়িয়ায় মাদক নিয়ে বিরোধ…….অতঃপর মাদক না পাওয়ার দু:খে বাড়ির গেটে তালা

দর্শনা অফিসঃ চুয়াডাঙ্গা সদর আকন্দবাড়িয়ায় মাদক নিয়ে মাদক ব্যবসায়ীদের মধ্যে বিরোধ সৃস্টি হয়েছে। এরই জের ধরে মাদক না পাওয়ার দুঃখ কষ্টে অপর এক মাদক ব্যবসায়ীর মধ্যে বাঁধে ঝগড়া-বিবাদ। একপর্যায় মাদক না পাওয়ার বেদনা সইতে না পেরে সাহান্নারার বাড়ির গেটের দরজায় রাজু নামের অপর মাদক ব্যবসায়ী ঝুলিয়ে দেয় তালা। এতে ওই ব্যবসায়ী গৃহবন্দি হয়ে আটকে যায় বাড়ির চার দেওয়ালের মধ্যে। এরপর সাহান্নারার নামে মামলা দেওয়ার ভয় দেখিয়ে বাড়ি থেকে বের হয়ে যায় রাজু। অবশেষে গ্রামে বিচারের আশায় থানায় মামলা নিয়ে দিয়ে বাড়ি ফেরে রাজু নামের মাদক ব্যবসায়ী। ঘটনাটি এলাকাজুড়ে ব্যপক চাঞ্চল্যর সৃষ্টি হয়েছে। গত সোমবার বেলা ১১টার দিকে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার বেগমপুর ইউনিয়নের আকন্দবাড়িয়া গ্রামের গাঙেরধার পাড়ায় ঘটনাটি ঘটে।
জানাগেছে, গত সোমবার বেলা ১১টার দিকে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার দর্শনা থানাধীন বেগমপুর ইউনিয়নের আকন্দবাড়িয়া গ্রামের গাঙেরধার পাড়ার আজিবারের স্ত্রী সাহান্নারা একই গ্রামের মাঝপাড়ার শাহাজাহানের ছেলে আলোচিত মাদক ব্যবসায়ী বিল্লালের নিকট হতে মাদক নিয়ে বিক্রি করছে এমন সন্দেহ জাগে সাহান্নারার প্রতিবেশী মাদক ব্যবসায়ী মৃত জলিল মিয়ার স্ত্রী রাজুর। এনিয়ে রাজু তার সহযোগী অারেক মাদক ব্যবসায়ী একই পাড়ার শরিফ উদ্দিনের স্ত্রী বিলুর সাথে জোট বাঁধে। শুরু করে ষড়যন্ত্র। এনিয়ে রাজু ও বিলু জোট বেঁধে সাহান্নারার বাড়ি হাজির হয়। এরপর রাজু ও বিলু দুজন মিলে সাহান্নারাকে বিল্লাল ফেনসিডিল দিয়েছে বলে জেরা করে। এনিয়ে তাদের মধ্যে
মাদককে কেন্দ্র করে বিরোধ সৃস্টি হয়।
এরই একপর্যায় মাদক না পাওয়ার বেদনা সইতে না পেরে দুঃখে কষ্টে রাজু
সাহান্নারার বাড়ির গেটের দরজায় তালা
ঝুলিয়ে দেয়। এতে গৃহবন্দি হয়ে বাড়ির চার দেওয়ালের মধ্যে আটকে পড়ে মাদক ব্যবসায়ী সাহান্নারা। এরপর রাজু রাগান্নিত হয়ে সাহান্নারার নামে মামলা দেওয়ার ভয় দেখিয়ে বাড়ি থেকে বের হয়ে পড়ে। ঘটনার আধাঘন্টা পরে বাড়ির গেটের তালা খুলে দেওয়া হয়। তবে বিষয়টি গ্রামে বিচারের আশায় থানায় মামলা না দিয়ে বাড়ি ফেরে রাজু।
এবিষয়ে স্থানীয় কয়েকজন জানায়, মাদক ব্যবসা নিয়ে তাদের মধ্যে এ বিরোধ। বিল্লালকে অগ্রিম টাকা দিয়ে রাজু মাদক না পাওয়ায় সে মাদক সাহান্নারা পাই বলে তাদের মধ্যে এ বিরোধ।
এবিষয়ে সাহান্নারা বলেন, আমি বিল্লালের কাছ হতে ফেনসিডিল নিয়েছি এমন সন্দেহে রাজু ও বিলু আমাকে জেরা করে। এনিয়ে তাদের মধ্যে বিরোধ হয়। একপর্যায় আমার বাড়ির গেটে বাইরে থেকে তালা ঝুলিয়ে দিয়ে থানায় আমার বিরুদ্ধে মামলা দেওয়ার হুমকী দিয়ে সে বের হয়ে পড়ে।
রাজু বলে, আমি বিল্লালের কাছে কিছু টাকা পাই। এনিয়ে সাহান্নারার নিকট যানতে চাইতেই আমাদের মধ্যে ঝগড়া হয়। একপর্যায় সাহান্নারা রাগান্বিত হয়ে আমার নাকের উপর একটি ঘুষি মারলে আমি আহত হয়।
তবে ঘটনাটি এলাকাজুড়ে ব্যপক চাঞ্চল্যর সৃষ্টি হয়েছে।