চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদার পুরোপাড়ায় মফসের আলী নামের এক বৃদ্ধকে কুপিয়ে জখম

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদায় মফসের আলী শেখ নামের এক বৃদ্ধকে কুপিয়ে জখম করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার রাতে চুয়াডাঙ্গা-দামুড়হুদা আঞ্চলিক মহাসড়কের পুরোপাড়া রামক স্থানে রাজা উটভাটার অদুরে পেয়ারা বাগানের নিকট এ ঘটনা ঘটে। আহত মফসের আলী শেখ (৫৫) দামুড়হুদা উপজেলার উজিরপুর গাংপাড়ার মৃত আহাদী শেখের ছেলে। আহত মফসের আলী শেখকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি রাখা হয়েছে।
চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে আহত মফসের আলীর শয্যাপাশে থাকা তার ছেলে মনিরুল ইসলাম বলেন, গতকাল রাত সাড়ে ৯ টার দিকে রাজা ইটভাটার কয়েকজন শ্রমিক আমাদের খবর দেয় মফসের আলীকে কে বা কাহার রক্তাক্ত অবস্থায় রাস্তায় ফেলে রেখে গেছে। খবর পেয়ে আমরা সেখানে যায় এবং তাকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করি।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক প্রত্যক্ষদর্শদের একজন বলেন, গতকাল রাত সাড়ে ৯ টার দিকে আমার ওই দিক দিয়ে যাচ্ছিলাম। এ সময় ওই ব্যাক্তিকে রাজা ইটভাটার সামনের আকেটি পেয়ারা বাগান থেকে রক্তাক্ত অবস্থায় বেড়িয়ে এসে পাকা রাস্তায় পড়ে থাকতে দেখি। রক্তাক্ত ওই বৃদ্ধা বাঁচাও বাঁচাও বলে চিৎকার করছিলেন।
আহত মফসের আলীর ভায়ের জামাই আজমল আলী জানান, মফসের আলী শেখ পেশায় একজন কাঠ বহনকারী লেবারদের সর্দার। তিনি পাখিভ্যান যোগে বাড়ি ফিরছিলেন এবং তার কাছে ৪ থেকে ৫ হাজার টাকা থাকে। কে বা কাহারা তাকে কুপিয়েছে তার কোন কিছু তারা জানেননা।
মফসের আলী কথা কলতে না পারার কারনে তেমন কিছু জানা সম্ভব হয়নি।
সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. সাকিল আর সালাম বলেন, ধারালো কিছু দিয়ে মফসের আলীর মাথায় কোপানো হয়েছে এবং ভারি কিছু দিয়ে তার শরীরে আঘাত করা হয়েছে। মফসের আলীর মাথায় ও বাম চোখের পাশে অসংখ্য সেলাই দিতে হয়েছে। ভারি কিছু দিয়ে আঘাতের কারনে তার ডান হাত ভেঙে গেছে। আমরা তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে হাসপাতালে ভর্তি রেখেছি। আহত মফসের আলীর অবস্থা আশঙ্কামুক্ত।
এ ব্যাপারে জানতে চাইলে দামুড়হুদা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আব্দুল খালেক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ঘটনা শোনার পরপরই পুলিশ সেখানে যায়। ঘটনাস্থল থেকে মফসের আলীর ব্যবহৃত মোবাইল ফোনটি পাওয়া গেছে। ঘটনার কারন এখনও জানা সম্ভব হয়নি।