স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গার জেসমিন খাতুন নামের এক গৃহবধুর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার সকালে চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার নুরনগর কলোনীপাড়ায় ঘরের সিলিংফ্যানের সাথে ঝুলন্ত অবস্থায় জেসমিন খাতুনকে উদ্ধার করে তার বাবার বাড়ির লোকজন। নিহত জেসমিন খাতুন চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার নুরনগর কলোনীপাড়ার আইজাল হোসেনের মেয়ে এবং আলমডাঙ্গার পাইকপাড়ার রাজিব হোসেনের স্ত্রী।
নিহত জেসমিন খাতুনের পরিবারের সদস্যরা জানান, গত ৬ মাস আগে আলমডাঙ্গার পাইকপাড়ার রাজিব হোসেনের সাথে পারিবারিক ভাবে বিয়ে হয় জেসমিন খাতুনের। ক’দিন আগে বাবার বাড়ি চুয়াডাঙ্গায় বেড়াতে আসে জেসমিন খাতুন। গতকাল মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে ঘরের দরজা বন্ধ দেখে জেসমিনের বড় বোন সাহান্নার সন্দেহ হয়। অনেক ডাকার পরও ভিতর থেকে কোন সারাশব্দ না পেয়ে দরজা ভেঙে ভিতরে প্রবেশ করলে ঘরের সিলিং ফ্যানের সাথে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখে তাকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নেয়া হয়। হাসপাতালের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃতবলে ঘোষণা করেন।
জেসমিন খাতুনের মৃত্যুর ঘটনায় তার পরিবারের লোকজন বলেন, বেশ কিছুদিন ধরে জেসমিনের উপর দৃষ্টি ভাব ছিলো। জেসমিন খাতুনের মৃত্যুর প্রকৃত রহস্য উম্মচন করা সম্ভব হয়নি।