স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গার অতি পরিচিত মুখ আওয়ামী লীগের একজন নীবেদিত প্রাণ মোস্তাফিজুর রহমান বুলবুল ইন্তেকাল করেছেন। স্ট্রোকে আক্রান্ত হয়ে গতকাল বুধবার বিকেলে মৃত্যুবরণ করেন তিনি (ইন্না লিল্লাহি……..রাজেউন)। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৫৪ বছর। মোস্তাফিজুর রহমান বুলবুল চুয়াডাঙ্গা জেলা শহরের কলেজপাড়ার মৃত মহিউদ্দিন বিশ্বাসের ছেলে এবং পৌর এলাকার ৯নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।
পরিবারের লোকজন জানান, গতকাল বুধবার বিকেলে জেলা আওয়ামী লীগের প্রধান কার্যালয়ে যুবলীগের একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে দলীয় কর্মীদের নিয়ে মিলিছ সহকারে সেখানে পৌছান মোস্তাফিজুর রহমান বুলবুল। অনুষ্ঠান শুরু হওয়ার কিছুক্ষণ পর বুকে ব্যাথা অনুভব করেন বুলবুল। জরুরি ভাবে তাকে নেয়া হয় চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগে। সেখানে বর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. তারানা আনোয়ার পরীক্ষা করার পর বুলবুলকে মৃত ঘোষণা করেন।
মোস্তাফিজুর রহমান বুলবুলের মৃত্যুর খবর মূহুর্তে চুয়াডাঙ্গা শহরে ছড়িয়ে পড়লে চারিদিকে শোকের ছাঁয়া নেমে আসে।
মোস্তাফিজুর রহমান বুলবুল ছিলেন দুই সন্তানের জনক এবং রেখে গেছেন স্ত্রীসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী। একমাত্র মেয়ে মাইসুন মলিহা কথা (১৮) ও ছেলে রুদ্র (১০)।
আজ বৃহস্পতিবার সকাল ৯ টায় সদর হাসপাতাল রোড়স্থ রিজিয়া খাতুন প্রভাতি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রথম জানাযা এবং গ্রামের বাড়ি হিজলগাড়ি বলদিয়াতে বেলা ১১ টায় দ্বিতীয় জানাযা শেষে সেখানেই দাফনকার্য সম্পন্ন করা হবে বলে তার পরিবারের পক্ষ থেকে বলা হয়।
মোস্তাফিজুর রহমান বুলবুল ছিলেন চুয়াডাঙ্গা তথা এ জেলার সকলের অতি পরিচিত এবং বঙ্গবন্ধুর আদর্শে গড়া বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের একজন একনিষ্ঠ কর্মী এবং জেলা আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন এমপির আস্থাভাজন ব্যাক্তি।
মোস্তাফিজুর রহমান বুলবুলের মৃত্যুর খবর শুনে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন এমপি তার বাড়িতে ছুটে যান। এ সময় তিনি শোক প্রকাশ করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।
মৃত্যুর খবর শুনে সেখানে ছুটে যান, জেলা আ.লীগের সহ-সভাপতি খুস্তার জামিল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রিয়াজুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার টোটন, সাংগঠনিক সম্পাদক মুন্সি আলমগীর হান্নান, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মোহাইমেন হাসান জোয়ার্দ্দার অনিক, জেলা যুবলীগের সাবেক আহবায়ক আরেফিন আলম রঞ্জু, জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য সিরাজুল ইসলাম মনিসহ জেলা আ.লীগ ও জেলা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *