গাংনীতে গ্রাহকদের সঞ্চয়কৃত টাকা নিয়ে ভূয়া এনজিও’র লাপাত্তা

গাংনী অফিসঃ মেহেরপুরের গাংনীতে গ্রাহকদেও লোন দেয়ার নামে তাদের কাছ থেকে লক্ষ লক্ষ টাকার সঞ্চয় নিয়ে গণ উন্নয়ন প্রচেষ্টা নামক একটি ভূয়া এনজিও’র স্ব-ঘোষিত কর্মকর্তা-কর্মচারীরা লাপাত্তা হয়েছে।ধার-দেনা করা টাকায় সঞ্চয় দিয়ে এখন গাংনী উপজেলার বিভিন্ন গ্রামের শতাধিক নারী-পুরুষ পথে বসেছে।জানা যায়,গাংনী পৌর এলাকার চৌগাছা গ্রামের রবিউল ইসলামের বাড়ি অফিস করার নামে ভাড়া নেয় গ্রামীণ উন্নয়ন প্রচেষ্টা নামক একটি এনজিও। প্রায়ই এক সপ্তাহ যাবত ওই বাড়িতে অফিসের কার্যক্রম চলে। এ সুযোগে ওই এনজি’র নামে গাংনী উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে তাদের মাঠকর্মীরা গ্রাহক প্রতি ২ লক্ষ টাকা লোন দেয়ার আশ্বাসে তাদের কাছ থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা সঞ্চয় নিয়ে  লাপাত্তা হয়েছে ।ভূয়া এনজি’র ফঁাদে পা ফেলে পথে বসেছেন গাংনী উপজেলার ধানখোলা ইউনিয়নের নিত্যানন্দপুর গ্রামের সখোরিয়ার স্ত্রী মার্তা সরকার,আদম মন্ডলের স্ত্রী জরিনা মন্ডল,থমেশ মন্ডলের স্ত্রী সপিতা মন্ডল,খোকন দফাদারের স্ত্রী ঝালু.ডেভিড সরকারের স্ত্রী ডলি সরকার,বিন্দু মন্ডলের স্ত্রী আরোতি মন্ডল,হিরোক মন্ডলের স্ত্রী মার্থা মন্ডল, সাইমন মন্ডলের স্ত্রী সুমিত্রা মন্ডল,ডেভিড মন্ডলসহ অনেকে। এছাড়াও উপজেলার তেঁতুলবাড়ীয়া এলাকায় অনেকের সাথে টাকা নিয়েছে বলে জানা গেছে।গাংনী উপজেলা নির্বাহী অফিসার আরএম সেলিম শাহনেওয়াজ জানান,বিষয়টি শুনেছি মাত্র। তবে এখনও পর্যন্ত কেউ লিখিত অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে,তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।