তিতুদহ প্রতিনিধি:চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার নবগঠিত গড়াইটুপি ইউনিয়নের গবর গাড়া গ্রামে উজ্জ্বল টেলিকম এর ব‍‍্যাবসায় প্রতিষ্টানে গত বুধবার অর্তকৃত হামলা ভাংচুর লুটপাটের অভিযোগ একই গ্রামের মৃত রঞ্জু বেপারীর ছেলে জহির উদ্দিন সহ তার পরিবারের বিরুদ্ধে। এই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে গত বৃহস্পতিবার ৭ জনের নামে দর্শনা থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করে উজ্জ্বল এর মা মিনারা বেগম। 
অভিযোগ তুলে নেওয়ার ব‍্যাপারে উজ্জ্বল সংবাদকর্মীদের জানান গত বুধবার রাত আনুমানিক রাত ১ : ৩০ এর দিকে আমার বাসায় হটাৎ দুর্বৃত্তরা হামলা করে আমার বাসার আসবাবপত্র ও অফিস ভাংচুর করে আমার ক‍্যাশে থাকা ১ লক্ষ ৭৬ হাজার টাকা ও ৫০ হাজার টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। ঘরের ভিতর আমায় ও আমার পরিবারকে আটকিয়ে রাখে। আমি চিৎকার দিয়ে প্রতিবেশিকে ডাকাডাকি করলে আমাদের মেরে ফেলার হুমকি সহ ঘরে আগুন জালিয়ে দেওয়ার কথা বললে আমরা ভয়ে কাউকে ডাকতে পারি নাই। পরে প্রতিবেশিরা এসে বাইরে থেকে ছিটকানি খুলে আমাদের বাহিরে বের করে। আমি প্রশাষনকে অবহিত করলে রাত আনুমানিক ২: ৩০ এর দিকে দর্শনা থানার তদন্ত ওসি মাহবুব রহমান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ও ন‍্যায় বিচারের আশ্বাস দেন। পরে বৃহস্পতিবার সকালে ৭ জনকে আসামি করে দর্শনা থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেন। পরে দর্শনা থানার এস আই মাহমুদুল শুক্রবার বিকালে থানায় বসে মিমাংসা করার কথা বললে বাদি পক্ষ যথাসময় থানায় উপস্থিত হলেও আসামি পক্ষের কেউ উপস্থিত হয় নাই। নতুন করে শনিবার সকালেও বসার কথা থাকলেও আসামি পক্ষের কেউ উপস্থিত হতে পারে নাই। বরং আসামি পক্ষ উল্টা অভিযোগ তুলে নেওয়ার জন‍্য বাদিকে হুমকি দেওয়া হয়। অভিযোগ তুলে না নিলে তাদের কে মারধর সহ মিথ‍্যা মামলায় হয়রানি করার ও হুমকি দেওয়া হয়। এ কারনে বাদি অসহায় অবস্থায় দিনযাপন করছে। 
এ বিষয়ে জহির উদ্দিন এর সাথে কথা বলার চেষ্টা করলে তার সাথে কথা বলা সম্ভব হয়নি তবে তার পরিবারের লোকজন বলেন এ ধরনের ন্যক্কারজনক ঘটনার সাথে আমরা কেউ যুক্ত নয় তারা জিতার জন্য নিজেদের বাসায় নিজেরা ভাঙচুর করে আমাদের উপর দোষারোপ করতেছে। আমরা কাউকে কোন প্রকার হুমকি দেই নাই। আমরা এই বিষয়টা তদন্ত চাই অপরাধী যারা হোক না কেন তাদেরকে আইনের আওতায় আনা হোক।