অবশেষে ৮ বছরের জেল

ঢাকা প্রতিনিধি:মাত্র এসএসসি পাস করে অনার্স ও মাস্টার্সের সার্টিফিকেট দাখিল করে এনসিসি ব্যাংকে জুনিয়র অফিসার পদে চাকরি নেওয়া সিদ্দিকুর রহমানকে আট বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত।

সোমবার ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৪ এর বিচারক শেখ নাজমুল আলম এ রায় দেন। রায়ে দণ্ডবিধির ৪৬৮ ধারায় আসামিকে পাঁচ বছর কারাদণ্ড ও ২৫ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও তিন মাসের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

এছাড়া একই আইনের ৪৭১ ধারায় তিন বছর কারাদণ্ড ও ১০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও তিন মাসের কারাদণ্ড দেয় আদালত।

দুদকের কৌঁসুলি মীর আহমেদ আলী সালাম জানান, দুটি দণ্ড একসঙ্গে চলবে বলে আদালত রায়ে বলেছেন। তাই আসামিকে পাঁচ বছর সাজা খাটতে হবে। রায় ঘোষণার সময় আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন। পরে তাকে সাজা পরোয়ানা দিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়।

অভিযোগ থেকে জানা যায়, সিদ্দিক এসএসসি পাস। পরে তিনি ফরিদপুরের সরকারি ইয়াসিন কলেজ থেকে এইচএসসি এবং জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন সরকারি রাজেন্দ্র কলেজ থেকে ব্যবস্থাপনা বিভাগে এমকম অনার্স ও মাস্টার্সের সার্টিফিকেট দাখিল করে এনসিসি ব্যাংকে জুনিয়র অফিসার হিসেবে ২০০৯ সালের ১ জানুয়ারি চাকরি নেন।

চাকরিতে থাকাকালে একটি দুর্নীতি মামলার তদন্ত চলাকালে তার সার্টিফিকেট জালিয়াতির বিষয়টি ধরা পড়ে। এরপর দুদক ২০১৭ সালের ১৫ নভেম্বর তার বিরুদ্ধে মতিঝিল থানায় জাল জালিয়াতি ও প্রতারণার মামলা করে