স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গায় ‘জনগণের দোরগোড়ায় সেবার ১০ বছর’ প্রতিপাদ্যে ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারের (ইউডিসি) দশ বছর পূর্তি উপলক্ষে সেমিনার ও কেক কাটার উৎসব হয়েছে। গতকাল বুধবার সন্ধ্যা ৬টায় চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে ও জুম ক্লাউড অ্যাপের মাধ্যমে এ সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। সেমিনারে চুয়াডাঙ্গার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মনিরা পারভীনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার। প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, ইউডিসি প্রতিষ্ঠা করা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দূরদর্শী চিন্তার মধ্যে অন্যতম। ইউডিসি প্রতিষ্ঠার ফলে সমাজ ও রাষ্ট্র ব্যবস্থার প্রতিটি ক্ষেত্রে একটি অবাধ তথ্য প্রবাহ সৃষ্টি করা সম্ভবপর হয়েছে, যেখানে মানুষকে আর সেবার জন্য দ্বারে দ্বারে ঘুরতে হচ্ছে না, বরং সেবাই পৌঁছে যাচ্ছে মানুষের দোরগোড়ায়। অবাধ তথ্য প্রবাহ জনগনের ক্ষমতায়নের অন্যতম পূর্বশর্ত। ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার স্থাপনের ফলে সাধারন নাগরিকগণ এখন সহজে, কম খরচে ও ঝামেলাহীনভাবে প্রায় ৬০ ধরনের সরকারি-বেসরকারি সেবা ইউডিসি থেকে পাচ্ছে।
সেমিনারে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, চুয়াডাঙ্গা পৌরসভার মেয়র ওবায়দুর রহমান চৌধুরী জিপু, চুয়াডাঙ্গা সরকারী আদর্শ মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর আজিজুর রহমান, চুয়াডাঙ্গার স্থানীয় সরকার বিভাগের ভারপ্রাপ্ত উপ-পরিচালক জাহিদুল ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট সাজিয়া আফরিন, চুয়াডাঙ্গা পৌরসভার সাবেক মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রিয়াজুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার টোটন প্রমুখ।
সেমিনারে পেপার উপস্থাপন করেন জীবননগর উপজেলা নির্বাহি অফিসার এস এম মুনিম লিংকন। সেমিনারে চুয়াডাঙ্গা কালেক্টরেটের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সুরাইয়া মমতাজের উপস্থাপনায় আরও বক্তব্য রাখেন, চুয়াডাঙ্গা সরকারী কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ প্রফেসর সিদ্দিকুর রহমান, সাংবাদিক শাহ আলম সনি, শংকরচন্দ্র ইউনিয়ন পরিষদের সচিব ফয়জুর রহমান, উদ্যোক্তা আল হেলাল প্রমুখ।
এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন, চুয়াডাঙ্গার নেজারত ডেপুটি কালেক্টর আমজাদ হোসেন, সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী মাজিস্ট্রেট শিবানী সরকার, ফিরোজ হোসেন প্রমুখ।