আলমডাঙ্গার পোয়ামারী গ্রামের এক মাদ্রাসায় ছাত্রকে বলাৎকারের অভিযোগে শিক্ষক আটক
আলমডাঙ্গা অফিস: আলমডাঙ্গার পোয়ামারী গ্রামের ১২ বছরের এক মাদ্রাসা ছাত্রকে বলাৎকারের অভিযোগে আবু মুছা নামের এক মাদ্রাসা শিক্ষককে আটক করেছে পুলিশ।
গতকাল শনিবার সন্ধ্যা ৭ টার দিকে পোয়ামারী এতিম খানার হাফেজিয়া মাদ্রাসায় এ ঘটনার সময় স্থানীয় লোকজন মাদ্রাসা ছাত্রকে উদ্ধার করে ওই শিক্ষককে গণধোলাই দেয়।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আলমডাঙ্গা উপজেলার বেলগাছি ইউনিয়নের পোয়ামারী গ্রামে অবস্থিত এতিমখানা ও মাদ্রাসা। ওই মাদ্রাসায় গত ৩ বছর পূর্বে বেলগাছি গ্রামের রথখোলা পাড়ার জামাল হোসেনের ছেলে আবু মুছা শিক্ষক হিসাবে যোগদান করে।
গতকাল শনিবার রাত ৮ টার দিকে মাদ্রাসার ছাত্ররা চিৎকার শুরু করলে  স্থানীয় লোকজন মাদ্রাসায় ছুটে যান। এ সময় মাদ্রাসায় সকল ছাত্র দলবদ্ধ ভাবে ছোটাছুটি করতে থাকে। তাদের মাঝে একটি শিশু কান্না জড়িত কন্ঠে  তাকে বলাৎকারের ঘটনাটি জানায়।ওই ছাত্র এছাড়াও, মাদ্রাসার অনেক ছাত্রের সাথে জোরপূর্বক এমনটি করে  বলে অনেক ছাত্রই অভিযোগ করে।
 এসময় উপস্থিত জনগন মাদ্রাসা শিক্ষককে গণধোলাই দেয়। পরে, আলমডাঙ্গা থানা পুলিশকে খবর দিলে  রাত ১০ টার দিকে মাদ্রাসা শিক্ষককে আটক করে পুলিশ।