আলমডাঙ্গার গড়গড়ি গ্রামে টাকা চুরিকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ
নারী ও শিশুসহ উভয় পরিবারের ৯ জন আহত


আলমডাঙ্গা অফিস ও স্টাফ রিপোর্টার: আলমডাঙ্গার গড়গড়ি গ্রামে টাকা চুরিকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় শিশুসহ উভয় পরিবারের ৯ জন আহত হয়েছে। গতকাল শুক্রবার বেলা ৪ টার দিকে চুয়াডাঙ্গা জেলার আলমডাঙ্গা উপজেলার জেহালা ইউনিয়নের গড়গড়ি স্বর্ণকার পাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। আহতরা হলেন, বাক্কা আলীর স্ত্রী রোকেয়া বেগম (৪৮),তার ছেলে বাবুল হোসেন (৩৩), মোমিন আলী (৩০), বাবুলের স্ত্রী পিংকি খাতুন (৩০), তার দুই মেয়ে জান্নাতুল (১০), নুজইফা খাতুন ও ছেলে মাহফুজ (১৮ মাস) মৃত দবীর আলীর স্ত্রী আসমা খাতুন ও তার ছেলে অমিত হাসান (২২)।
হাসপাতালে আহতদের শয্যাপাশে থাকা পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা জানান, রোকেয়া বেগমের স্ত্রীর ঘর থেকে ২৫শ’ টাকা চুরি হয়। টাকা চুরির দোষ চাপানো হয় তার নাতনি জান্নাতুলের উপর। এ নিয়ে গতকাল বেলা ৪ টার দিকে তাদের পরিবারের মধ্যে কথা-কাটাকাটি হয়। এরই একপর্যায়ে বাবুলের স্ত্রী পিংকি খাতুন তার শ্বাশুরিকে বাইলধারা দিয়ে আঘাত করে। পরে বাবুল হোসেন তার ভাই মোমিন আলীকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপ মারে। এ নিয়ে ওই পরিবারের সবাই সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এতে নারী ও শিশুসহ ওই পরিবারের ৯ জন আহত হয়। স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় আহতদের উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নেয়া হয়। আহতদের মধ্যে আব্দুল মোমিন, বাবুল হোসেন, জান্নাতুল ও পিংকি খাতুনকে হাসপাতালে ভর্তি রাখা হয়েছে। বাকিরা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরেছে।

সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. ওয়াহেদ মাহমুদ রবিন বলেন, আহতদের অবস্থা আশঙ্কামুক্ত। আহতদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। তাদের মধ্যে ৪ জন বাদে বাকিরা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরেছে।
আলমডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলমগীর কবির জানান, ওই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কোন পক্ষই থানায় অভিযোগ করেননি। অভিযোগ পেলে প্রয়োজনিয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।